মেইন ম্যেনু

মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভারে সহায়তা বাড়াচ্ছে সৌদি আরব

রাজধানীর মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভার প্রকল্প বাস্তবায়নে সহায়তা বাড়াচ্ছে সৌদি আরব। ফ্লাইওভারটির নতুন অংশ নির্মাণে সৌদি আরব অতিরিক্ত ৫০ মিলিয়ন সৌদি রিয়াল (১ কোটি ৩৩ লাখ মার্কিন ডলার) দিচ্ছে। সৌদি ফান্ডের মাধ্যমে ঋণসহায়তা দেবে দেশটি। অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, ঢাকা মেট্রোপলিটনের মগবাজার-মৌচাক-মালিবাগ-শান্তিনগর ও তেজগাঁও এলাকার যানজট নিরসন করে অবাধ যান চলাচল নিশ্চিত করতে ২০১১ সালে এ প্রকল্পটি গ্রহণ করা হয়। সে সময় ব্যয় ধরা হয়েছিল ৭৭২ কোটি ৭০ লাখ টাকা। পরে প্রথম সংশোধনীর মাধ্যমে প্রায় ৪৪৬ কোটি টাকা বাড়িয়ে মোট ব্যয় ধরা হয় ১ হাজার ২১৮ কোটি ৯০ লাখ টাকা। বর্তমানে নতুন অংশ যুক্ত হওয়ায় অতিরিক্ত অর্থের প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়। এ পরিপ্রেক্ষিতে সৌদি আরব অর্থসহায়তা বাড়িয়েছে। এ প্রকল্পে ইতোমধ্যেই ২৫০ মিলিয়ন সৌদি রিয়াল (৬ কোটি ৮৩ লাখ মার্কিন ডলার) দিয়েছে সৌদি।

এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) বাংলাদেশ সরকার ও সৌদি আরবের মধ্যে একটি চুক্তি হতে যাচ্ছে। সৌদি এক্সপোর্ট প্রোগ্রামের মহাপরিচালক আহমেদ এম আলগানান ঢাকা সফরের সময় চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন। রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠেয় চুক্তিতে স্বাক্ষর করবেন অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ মেজবাহউদ্দিন।

এ প্রসঙ্গে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের দায়িত্বশীল এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, প্রকল্পটি বাস্তবায়নে সৌদি আরব শুরু থেকেই অর্থায়ন করছে। পরবর্তীকালে এফডিসি থেকে হোটেল সোনারগাঁও পর্যন্ত অংশটি মূল নকশায় না থাকায় তারা অর্থায়নে রাজি হচ্ছিল না। অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে তাদের রাজি করানো হয়েছে। তবে চুক্তি স্বাক্ষর না হওয়া পর্যন্ত নিশ্চিতভাবে কিছু বলা যাচ্ছে না।

জানা গেছে, সৌদি ফান্ডের শর্ত অনুযায়ী এ ঋণের বার্ষিক লোন চার্জ দিতে হবে ২ শতাংশ। ৫ বছরের গ্রেস পিরিয়ডসহ ২৫ বছরে এই ঋণ পরিশোধ করতে হবে সরকারকে।






মন্তব্য চালু নেই