মেইন ম্যেনু

মঙ্গলেও ফুল ফোটে!

ধূ ধূ মরুভূমি। দিগন্ত বিস্তৃত পাথর, ধুলো আর পাথুরে পাহাড়। কোথাও এক ফোঁটা তরল জল নেই। গাছপালা থাকার প্রশ্নই ওঠে না। তুবও ফুল ফুটেছে মঙ্গলে। আর সেই ফুলটির ছবি পৃথিবীতে আসে ২০১৩ সালে। ফুলটির ছবি তোলে নাসার মঙ্গলযান কিউরিওসিটি।

আসলে এটা কোনও জীবন্ত ফুল নয়। গোলাপি রংয়ের পাঁপড়িটি হচ্ছে মুক্তা পাথর। কিওরিসিটির রোভার ক্যামেরায় এমনভাবে ধরা পড়েছে যেন সদ্যফোটা কোনও পাহাড়ি ফুল। ফুলের নামও দিয়েছেন নাসার বিজ্ঞানীরা- ‘মার্শিয়ান ফ্লাওয়ার’।

ছবিতে দেখা যায়, মঙ্গলে পাথরপৃষ্ঠ ভেদ করে বের হচ্ছে মুক্তর পাঁপড়ি সদৃশ বস্তুটি।

২০১২ সালের অক্টোবর মাসেও সৌরজগতের গ্রহ মঙ্গলে একই ধরনের একটি বস্তু ধরা পড়েছিল রোভারের ক্যামেরায়। বিজ্ঞানীরা বিশ্লেষণ করে পরে জানান, ওই বস্তুটি রোভারেরই ছিল। পরে তা পড়ে গিয়েছিল মঙ্গলপৃষ্ঠে।

নাসার বিজ্ঞানী গুয়ে ওয়েবস্টার ফুলটা সম্পর্কে বলেন, ‘ফুলের পাঁপড়ির মতো দেখতে ওই বস্তুটা হতে পারে একগুচ্ছ পাথরের অংশ। আমি মনে করি, চেহারা দেখে কেউ ‘ফুল’ বলেছেন কিন্তু এর মানে এই নয়, মঙ্গলে ফুলের অস্তিত্ব রয়েছে।’






মন্তব্য চালু নেই