মেইন ম্যেনু

মজুত গ্যাস চলবে আর দশ থেকে বারো বছর

জাতীয় সংসদে জ্বালানি ও বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, ‘যে হারে আমাদের গ্যাসের ব্যবহার বাড়ছে, আর আমাদের যে গ্যাস আছে তা দিয়ে দশ থেকে বারো বছর চলবে। যদি নতুন আবিষ্কৃত গ্যাস পাইপ লাইনে না আসে তাহলে আমাদের এই মজুদকৃত গ্যাস উল্লেখিত বছরের মধ্যেই শেষ হয়ে যাবে।’

মঙ্গলবার রাতে দশম জাতীয় সংসদের নবম অধিবেশনে ঢাকা-৭ আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য হাজি মো. সেলিমের পয়েন্ট অব অর্ডারে মন্ত্রী কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা বিকল্প হিসেবে একটি পরিকল্পনা নিয়েছি। আবাসিক খাতে পাইপ লাইনের ১২ শতাংশ মানুষ ব্যবহার করে। বাকিরা সবাই সিলিন্ডার বা লাকড়ি ব্যবহার করে। সকলে যাতে সুনিশ্চিতভাবে সাশ্রয়ী মূল্যে জ্বালানি ব্যবহার করতে পারে সেজন্য আমরা একটি অ্যাকশন প্ল্যান তৈরি করছি- আগামীতে আবাসিক খাতে আমরা কি ধরনের জ্বালানি দেবো।’

তিনি বলেন, ‘ধীরে ধীরে আগামী তিন বছরের মাথায় সারাদেশে ৭০ শতাংশ আবাসিক খাতে এলপিজিতে চলে যাবে এবং এটা দেয়া হবে সাশ্রয়ী মূল্যে। কারণ আমরা আরবান খাতে পাইপ লাইনের যে গ্যাস ব্যবহার করি তার মূল্য মাসে ছয়শ টাকা। আর এলপিজি যারা ব্যবহার করে তাদের প্রতি মাসে দেড় থেকে আড়াই হাজার টাকা লাগে। তাই আরবান এবং রুরালের মধ্যে এই বৈষম্য সমন্বয় করার অ্যাকশন প্ল্যান নিয়েছি।’

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, ‘আরেকটি বিষয় হলো যদি আমরা সিএনজি থেকে গ্যাসটা শিল্পতে ব্যবহার করতে পারি তাহলে শিল্পতে আমাদের চাকরির পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে। বৈদেশিক টার্নিং বাড়বে। তবে বেশকিছু দিন যাবৎ গ্যাসের সমস্যা নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। এখন আপাতত সমস্যা নেই।’






মন্তব্য চালু নেই