মেইন ম্যেনু

মদপানে আ.লীগ মনোনীত প্রার্থীর মৃত্যু

অতিরিক্ত মদ পানে গুরুতর অসুস্থ রাজশাহীর আড়ানী পৌরসভার আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী বাবলু হোসেন (৪৫) চলে গেলেন না ফেরার দেশে।

বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

অতিরিক্ত মদপানে গুরুতর অসুস্থ হলে আজ সকালে বাবলুকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

বাবলু হোসেন বাঘা উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ছিলেন।

এলাকাবাসী জানান, গত বুধবার বিকেলে দলীয় প্রত্যয়নপত্র নিয়ে ঢাকা থেকে আড়ানীতে ফেরেন বাবলু হোসেন। পরে কয়েকজন সহযোগী নিয়ে সারারাত মদপান করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে মনোনয়নপত্র দাখিলের জন্য সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও বাঘা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে যাওয়ার পথে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাকে বাঘা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

অবস্থা গুরুতর হওয়ায় বাবলুকে রাজশাহী মেডিকেল (রামেক) কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুর আড়াইটার দিকে তার মৃত্যু হয়।

আড়ানী পৌরসভা আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতাকর্মী জানান, বাবলু হোসেন নিয়মিত চোলাই মদ পান করতেন। সম্প্রতি তিনি দুই দফায় মাদক নিরাময় কেন্দ্রে চিকিৎসাও নিয়েছেন। সেখান থেকে বের হওয়ার পর তিনি আবারও মদে আসক্ত হয়ে পড়েন।

বাবলুর স্ত্রী দিপালী বেগম বলেন, অতিরিক্ত মদপান করায় বৃহস্পতিবার ভোর থেকেই আমার স্বামী অসুস্থবোধ করছিলেন।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউ ইনচার্জ ডা. গোলাম মোস্তফা জানান, আওয়ামী লীগ নেতা বাবলু হোসেনকে যখন আইসিইউতে আনা হয় তখন তার জ্ঞান ছিল না। নেশাজাতীয় অতিরিক্ত কিছু পানের কারণে তার শরীরে বিষক্রিয়ার লক্ষণ স্পষ্ট ছিল।

এদিকে বাবলু হোসেনের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও রাজশাহী-৬ আসনের সংসদ সদস্য শাহরিয়ার আলম।






মন্তব্য চালু নেই