মেইন ম্যেনু

মধুপুরে তরুণী ধর্ষিত, গ্রেফতার ২

টাঙ্গাইলের মধুপুর বনে এক তরুণী (১৭) গণধর্ষিত হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের পর ওই দুই ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে মধুপুর থানা পুলিশ।

সোমবার দুপুরে উপজেলার বনাঞ্চলের বেরিবাইদ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

মামলা সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, পৌর এলাকার দুর্গাপুরের বাসিন্দা ধর্ষিতা ওই তরুণী তার চাচাত ভাই আবুল কাশেমের সঙ্গে অরণখোলা ইউপির ঘুঘুর বাজার এলাকায় কবিরাজ বাড়ি যাচ্ছিল। এ সময় স্থানীয় যুবলীগ নেতা অরণখোলা ইউনিয়নের জলছত্র গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে আমিনুল ইসলাম (২৩) ও একই এলাকার ইব্রাহীমের ছেলে অরণখোলা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি আরিফুল ইসলাম (২৪) তাদের পিছু নেয়। এক পর্যায়ে বেরিবাইদ এলাকায় পৌঁছলে ওই দুজন কাশেমকে আটকে রেখে ওই তরুণীকে ধর্ষণ করে। পরে কাশেম বন থেকে বের হয়ে এসে টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ মহাসড়কে টহলরত পুলিশকে বিষয়টি জানান। পরে অরণখোলা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আমিনুুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ বনে গিয়ে বিবস্ত্র অবস্থায় ওই তরুণীকে উদ্ধার করে। এ সময় পুলিশ ধর্ষক দুজনকে গ্রেফতার করে।

এ ব্যাপারে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম বাবলুর কাছে আরিফুলের ছাত্রলীগের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার কথা জানতে চাইলে তিনি অস্বীকার করেন। অপরদিকে অরণখোলা ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নাজির হোসেনও আমিনুলের যুবলীগের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার কথা অস্বীকার করেন।

এ ব্যাপারে মধুপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সফিকুল ইসলাম জানান, এ বিষয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯(১)/৩০ ধারায় ধর্ষণ মামলা হয়েছে। ধর্ষিতার মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য টাঙ্গাইল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা রাজনৈতিক দলের নেতা কিনা সে বিষয়ে তিনি কিছু জানেন না।






মন্তব্য চালু নেই