মেইন ম্যেনু

মধ্যরাতে জেগে উঠবে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান

লাল সবুজের পতাকা অর্জনসহ বাংলাদেশের প্রতিটি অর্জন-সংগ্রামের পীঠস্থান ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যান। স্বাধীনতা পরবর্তী দেশের প্রতিটি অর্জন বা বিশেষ দিবসে উদ্যানটি প্রাণবন্ত কোলাহলে, উচ্ছ্বাস-আবেগে জেগে থাকে। আগামীকাল স্বাধীনতা দিবসে মানুষের পদচারণা ও কোলাহলে জেগে থাকবে তৎকালীন রেসকোর্স ময়দান।

শুক্রবার দুপুরে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গিয়ে বিভিন্ন অনুষ্ঠান বা আয়োজনের প্রস্তুতি নিতে দেখা গেছে। স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সেখানে এবারও বিভিন্ন অনুষ্ঠান হবে। বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন অনুষ্ঠানের উদ্যোগ নিয়েছে। এ লক্ষ্যে শিখা চিরন্তনের পাশে আজ থেকে দুই দিনব্যাপী বিভিন্ন অনুষ্ঠানের উদ্যোগ নিয়েছে স্বাধীনতা চারুশিল্পী পরিষদ। সংগঠনটি গণহত্যা-’৭১ চিত্রকলা এবং বাঙালির স্বাধীনতা সংগ্রাম-এর আলোকচিত্র প্রদর্শনী করবে। অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করবেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। সভাপতিত্ব করবেন শিল্পী আনোয়ার হোসেন।

স্বাধীনতা স্তম্ভের পাদদেশে স্বাধীনতা সেক্টর কমান্ডার্স ফোরাম শুক্রবার মধ্যরাতে অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। আয়োজনের মধ্যে রয়েছে- মধ্যরাতের ঠিক আগে সব বাতি নিভিয়ে মশাল জ্বালানো। সেই মশাল মুক্তিযোদ্ধারা তুলে দেবেন পরবর্তী প্রজন্মের কয়েকজন প্রতিনিধির কাছে।

আগামীকাল সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের স্বাধীনতা জাদুঘরে বিনামূল্যে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর কর্তৃপক্ষ। উদ্যানের শিখা চিরন্তন সম্মুখে বৃক্ষের উপর আলোকসজ্জা করা হয়েছে। যা দিনের আলো নিভে গেলেই অন্যমাত্রায় রূপ ধারণ করবে।






মন্তব্য চালু নেই