মেইন ম্যেনু

মনে পড়ে সাথী ও হঠাৎ বৃষ্টি’র প্রিয়াঙ্কাকে? কিন্তু এখন কোথায় তিনি?

ছিলেন মিস ক্যালকাটা। তার পরে ছবির জগতে আসা। মিলেনিয়ামের ঠিক পর পরই বাংলা ছবির জগতে রেকর্ড তৈরি করেছিল ‘সাথী’। সেই ছবির নায়িকা প্রিয়াঙ্কা এখন কোথায়?

২০০২ সালে ‘সাথী’-ই টলিউডে জিৎ-এর প্রথম সিনেমা। তখনও বাংলার মানুষ তাকে ‘নবাব কিনলে আরাম ফ্রি’ টিভি কমার্শিয়ালের জন্যই চিনতেন। ছবির নায়িকা প্রিয়ঙ্কা ত্রিবেদী কিন্তু ততদিনে বাংলা, হিন্দি, তামিল, তেলেগু, কন্নড় মিলিয়ে ১২টি ছবি করে ফেলেছেন। প্রথম ছবিতেই তাই একজন হিট নায়িকাকে পেয়েছিলেন জিৎ।

হয়তো অনেকেরই মনে নেই প্রিয়াঙ্কা ছিলেন ১৯৯৬ সালের মিস ক্যালকাটা। প্রথমে মডেলিং ও তার পরে বাসু চট্টোপাধ্যায়ের ‘হঠাৎ বৃষ্টি’ ছবি দিয়ে ফেরদৌসের বিপরীতে ১৯৯৮ সালে বাংলা ছবিতে আত্মপ্রকাশ। এই সুন্দরী নায়িকা প্রথম ছবি থেকেই দর্শকদের প্রিয় হয়ে ওঠেন।

জিৎ-প্রিয়াঙ্কা জুটির ‘সাথী’-র পরে আরও পাঁচটি বাংলা ছবি করেছেন প্রিয়াঙ্কা কিন্তু ২০১১ সালের ‘হেলো মেমসাহেব’-এর পরে আর তাকে বাংলা ছবিতে দেখা যায়নি। শুধু তাই নয়, ২০০২ থেকে ২০১১ এই পর্যায়ে তাকে হাতে-গোনা কয়েকটি বাংলা ছবিতে দেখা গিয়েছে। অনেকেই হয়তো এতদিনে ধরে নিয়েছেন যে ছবির জগৎ থেকে বিদায় নিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা।

তবে এ তথ্য একেবারেই সঠিক নয়, প্রিয়াঙ্কা এখন পুরোপুরি মন দিয়েছেন দক্ষিণী ছবিতে। এবং এই বছরও রিলিজ হয়েছে তার কন্নড় ছবি ‘প্রিয়াঙ্কা’ তবে তিনি আর প্রিয়াঙ্কা ত্রিবেদী নামে পরিচিত নন, তার বর্তমান নাম ‘প্রিয়াঙ্কা উপেন্দ্র’।

কন্নড় ছবির নায়ক উপেন্দ্র কুমারের সঙ্গে তার বিয়ে হয়েছে। উপেন্দ্রর সঙ্গে তার আলাপ ২০০১ সালে, ‘রা’ ছবির সেটে। এখন স্বামী এবং দুই ছেলেমেয়েকে নিয়ে বেঙ্গালুরুতে থাকেন প্রিয়াঙ্কা। এবং এখনও যে তিনি আগের মতোই সুন্দরী তা এই ছবিগুলি দেখেই বোঝা যায়। -এবেলা






মন্তব্য চালু নেই