মেইন ম্যেনু

মন্ত্রিসভায় থাকলে জাপা মানুষের বিশ্বাস হারাবে

সরকারের মন্ত্রিসভায় জাতীয় পার্টি আর থাকছে না ইঙ্গিত দিয়ে দলটির কো চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী জিএম কাদের বলেছেন, দেশে তো কোনো জরুরি অবস্থা চলছে না যে, সব দল নিয়ে মন্ত্রিসভা হতে হবে। মন্ত্রিসভায় থাকলে বিরোধী দল হিসেবে জাতীয় পার্টি জনগণের বিশ্বাস অর্জন করতে পারবে না।

মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় সাংস্কৃতিক পার্টির উদ্যোগে আয়োজিত পার্টির কো চেয়ারম্যান হিসেবে জিএম কাদের ও মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদারের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘জাতীয় পার্টিকে শক্তিশালী বিরোধী দল হিসেবে কাজ করার সুযোগ দিন। কারণ জনগণ জাতীয় পার্টিকে কলঙ্কমুক্ত দেখতে চাইছে।’

মাঠপর্যায়ে এখন রাজনৈতিক শূন্যতা বিরাজ করছে মন্তব্য করে জিএম কাদের বলেন,‘সরকারী দলের লোকেরা সরকারের পক্ষে বলছেন, কিন্তু কোনো বিরোধিতা নেই। জনগণ চাচ্ছে জাতীয় পার্টি সত্যিকার অর্থে বিরোধী ভূমিকা নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যাক।’

তিনি বলেন, ‘আমরাও চাই সংসদে কার্যকর ও সত্যিকারের বিরোধী দল হিসেবে ভূমিকা রাখতে। এজন্য জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্যরা সংসদে থাকবে এবং বিরোধী দল হিসেবে রাজপথে সক্রিয় ভূমিকা রাখবে। আমরা দেশকে সবসময় স্থিতিশীল দেখতে চাই।’

জাতীয় পার্টিতে একটি সিদ্ধান্তের ফলে আজ জাগরণ সৃষ্টি হয়েছে মন্তব্য করে জিএম কাদের বলেন, ‘দীর্ঘদিন মানুষ প্রত্যাশা নিয়ে জাতীয় পার্টির দিকে তাকিয়ে ছিল। রাজনীতিতে এখন নানা পরিস্থিতি চলছে, পরিবর্তন আসছে। এর ফলে মানুষ জাতীয় পার্টির কাছ থেকে প্রত্যাশা করে। বিরোধী দল হিসেবে জনগণের কাছে আমাদের বিশ্বাসযোগ্যতা অর্জন করতে হবে। সরকারের মন্ত্রিপরিষদে থাকাকালীন বিরোধী দল হিসেবে আমরা মানুষের বিশ্বাস অর্জন করতে পারিনি। তাই এখন থেকে আমাদের সত্যিকারের বিরোধী দলের ভূমিকায় যেতে হবে।

জাতীয় সাংষ্কৃতিক পার্টির সভাপতি বাদল খন্দকারের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন জাপার মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রেজাউল করিম ভুঁইয়া, প্রেসিডিয়াম সদস্য মাসুদ পরভেজ সোহেল রানা, মীর আব্দুস সবুর আসুদ ও সাংস্কৃতিক পার্টির সাধারণ সম্পাদক নাজমুল খান।






মন্তব্য চালু নেই