মেইন ম্যেনু

মরেও শান্তি নেই!

জীবনের সবচেয়ে হৃদয়বিদারক ঘটনা বোধ করি প্রিয়জনের মৃত্যু। কাছের মানুষের মৃত্যু কেউই সহজে মেনে নিতে পারে না। তবে ইন্দোনেশিয়ার তোরাজা গ্রামের মানুষ একটু বেশিই স্মৃতিকারত বলতে হয়। ওই গ্রামের রেওয়াজ অনুযায়ী, মৃত ব্যক্তিকে কবর থেকে তুলে তার পরিচর্চা করা হয়, পরানো হয় পছন্দের পোশাক।

মৃত্যুর পর প্রিয়জন আর আমাদের পাশে থাকবে না। পাবো না তাদের হাতের স্নেহপূর্ণ স্পর্শ। কঠিন হলেও এই চরম সত্যটা মেনে নিতেই হয়। তবে কোথাও কোথাও বোধহয় মানুষ সত্যিই অতীতকে আঁকড়ে বাঁচতেই ভালবাসে। ইন্দোনেশিয়ার তোরাজা গ্রামে প্রিয়জনদের স্পর্শ পেতে তাঁদের কবর থেকে তুলে আনার এই উৎসব মা’নেনে নামে পরিচিত।

কবর থেকে তুলে এনে গোসল করিয়ে জম্বির পোশাকে সুন্দর করে সাজানো হয়। শিশুদের সাজিয়ে পাশে শুইয়ে দেওয়া হয় তার প্রিয় খেলনা। মা’নেনে নামক এই রীতির অর্থ হলো মৃতদেহ পরিষ্কার করার উৎসব।

কিছুটা প্রাচীন বিশ্বাস, আর কিছুটা স্মৃতি আঁকড়ে বেঁচে থাকার তাগিদই এমন এক কাজ করতে উৎসাহ দেয় তাঁদের। তোরাজান গ্রামের মানুষের বিশ্বাস, মৃত্যুর পর প্রত্যেক মানুষের আত্মা ঘরে ফিরে আসে। তাই যাত্রাপথে বা গ্রাম থেকে দূরে কারও মৃত্যু হলে মৃতদের তাঁদের সঙ্গে ‘হাঁটিয়ে’ গ্রামে ফিরিয়ে আনতেন আত্মীয়রা।

এমনকী ওই গ্রামের গণমাণ্যদের জন্য রয়েছে পাথরের বিশাল দেওয়াল। সেই দেওয়ালে মৃতদেহ বাঁশের সাহায্যে আটকে রাখা হয়। থরে থরে সেখানে নানা রঙের পোশাকে ঝুলছে মরদেহ। মে’নেনে উৎসবে তাদের পরিষ্কার করে পরিয়ে দেয়া হয় পছন্দের পোশাক।

এমনকী মৃত্যুর পর স্বামী-স্ত্রীকে পরিষ্কার করিয়ে নতুন পোশাক পরিয়ে তাদের পাশাপাশি দাঁড় করিয়ে রাখা হয়।

মে’নেনে উৎসবে কফিন থেকে মরদেহ বের করে আনা হয়। এরপর তাদের পরিষ্কার করে নতুন পোশাক পরিয়ে আবার কফিনে শুইয়ে দেয়া হয়।






মন্তব্য চালু নেই