মেইন ম্যেনু

অপহৃত ছাত্রীর লাশ উদ্ধার

মসজিদে হত্যা করে পাশেই মাটিচাপা ইমাম আটক

মাদারীপুর রাজৈর উপজেলায় অপহরণের দুই দিন পর এক স্কুলছাত্রীর লাশ মসজিদের পাশে মাটিচাপা দেওয়া অবস্থায় গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ বলছে, শিশুটিকে সেনদিয়া গ্রামের মসজিদে শ্বাসরোধে হত্যার পর সিমেন্টের বস্তায় ভরে পাশেই মাটিচাপা দেওয়া হয়।

এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে মসজিদের ইমামকে আটক করা হয়েছে। নিহত শিশুটির নাম আদুরী (৬)। সে সেনদিয়া গ্রামের ব্যবসায়ী টুকু সরদারের মেয়ে। সেনদিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ছাত্রী ছিল সে। আটক করা মসজিদের ইমামের নাম মো. সফিকুল ইসলাম (২৫)। তিনি পিরোজপুর সদর উপজেলার বৈয়ামপুর গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে।

পুলিশ, স্থানীয় লোকজন ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, প্রতিদিনের মতো রবিবার সকালে আদুরী আরবি শেখার জন্য মসজিদের ইমাম সফিকুল ইসলামের কাছে যায়। দুপুর গড়িয়ে গেলেও শিশুটি বাড়ি ফিরে না আসায় পরিবারের সবাই খোঁজাখুঁজি করতে শুরু করে। পরে ০১৯৬০২৬৪৪২২ নম্বর থেকে আদুরীর পরিবারের কাছে কয়েকবার ফোন করে দুই লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়।

রাজৈর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সমীর জানান, আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদে ইমাম সফিকুল ইসলাম শিশুটিকে হত্যার কথা স্বীকার করেন। রাজৈর থানার ওসি মো. আনোয়ার হোসেন ভূঞা জানান, শিশুটিকে মসজিদেই শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই