মেইন ম্যেনু

মসজিদে হামলা: স্বেচ্ছাসেবীদের ফিরিয়ে নেবে অস্ট্রেলিয়া

বগুড়ার শিবগঞ্জে একটি শিয়া মসজিদে বন্দুকধারীদের হামলায় একজনের নিহত হওয়ার পর জঙ্গি সংগঠন আইএসের নামে ওই হামলার দায় স্বীকারের খবর আসার পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ থেকে সব স্বেচ্ছাসেবী ফিরিয়ে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। অস্ট্রেলিয়া সরকারের পররাষ্ট্র দপ্তরের ওয়েবসাইটে বাংলাদেশ ভ্রমণে সর্বশেষ সতর্কতায় এ কথা জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, আগামী ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে অস্ট্রেলিয়া সরকারের অর্থায়নে কাজে নিয়োজিত স্বেচ্ছাসেবীদের দেশে ফিরিয়ে নেয়া হবে।

গতকাল রাতে বগুড়ার শিবগঞ্জের হরিপুরে শিয়া সম্প্রদায়ের আল-মোস্তফা জামে মসজিদে হামলা চালায় বন্দুকধারীরা। এতে ওই মসজিদের মুয়াজ্জিন নিহত হন ও আহত হন আরো তিনজন। এরপর ওই হামলা দায় স্বীকারের খবর দেয় জঙ্গি তৎপরতা পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা সাইট ইন্টেলিজেন্স গ্রুপ।

বাংলাদেশে শিয়া মুসলিমদের সংখ্যা খুব বেশি না এবং তাদের উপর হামলার ঘটনা একেবারেই বিরল। তবে বগুড়ার এই ঘটনার মধ্যে দিয়ে অল্প সময়ের মধ্যে এটি তাদের উপর দ্বিতীয় হামলার ঘটনা ঘটলো। আগের হামলাটি হয়েছিল গত ২৩ অক্টোবর দিবাগত রাতে রাজধানী ঢাকার হোসেনী দালানে। আশুরা উপলক্ষে সেখানে তাজিয়া মিছিলের প্রস্তুতি চলছিল। ওই হামলার দায় স্বীকার করে আইএসের বার্তার খবর দেয় সাইট ইন্টেলিজেন্স।

অস্ট্রেলিয়া সরকারের বার্তায় বাংলাদেশে চলাচলে উচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করতে বলা হয়েছে। এর কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ সন্ত্রসী হামলার উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে। এছাড়া বাংলাদেশের ‘অনিশ্চিত’ রাজনৈতিক অবস্থার কথাও বলা হয়েছে।

অস্ট্রেলিয়া এবং পশ্চিমা স্বার্থের উপর হামলা হতে পারে- এমন তথ্য রয়েছে বলেও ওই বার্তায় উল্লেখ করা হয়েছে।

বাংলাদেশে সাম্প্রতিক কিছু প্রাণঘাতী হামলার পর আইএসের নামে দায় স্বীকারের খবর আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে এলেও বাংলাদেশ সরকার বলে আসছে এখানে আইএসের মতো জঙ্গিগোষ্ঠীর কোনো অস্তিত্ব নেই।






মন্তব্য চালু নেই