মেইন ম্যেনু

মস্কোকে হুঁশিয়ার করলেন প্রেসিডেন্ট এরদোগান

রুশ যুদ্ধবিমানের এক দিনের ব্যবধানে দু বার নিজ দেশের আকাশসীমা লঙ্ঘণের ঘটনায় মস্কোর বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন তুর্কী প্রেসিডেন্ট রেসেপ তায়িপ এরদোগান। সিরিয়ায় জঙ্গিদের বিরুদ্ধে বিমান হামলা চালানোর সময় রোববার ও মঙ্গলবার তুরস্কের দক্ষিণাঞ্চলীয় হাতাই প্রদেশের ইয়ালাদাগি এলাকার আকাশসীমায় প্রবেশ করেছিল একটি রুশ বিমান।

এ ঘটনায় রাশিয়ার সমালোচনা করে প্রেসিডেন্ট এরদোগান বলেছেন, তাদের এ ধরণের আচরণে তিনি ধৈয্য হারিয়ে ফেলেছেন। তিনি মস্কোকে সতর্ক করে দিয়ে আরো বলেছেন,‘তুরস্কের বিরুদ্ধে যে কোনো হামলা ন্যাটোর বিরুদ্ধে হামলা হিসেবে ধরে নেয়া হবে।’ মঙ্গলবার ব্রাসেলস সম্মেলনে অংশ গ্রহণকালে এ মন্তব্য করেন এরদোগান।

এর আগে আকাশসীমা লঙ্ঘণের এ ঘটনায় সোমবার রুশ রাষ্ট্রদূতকে দ্বিতীয়বারের মত তলব করেছিল আঙ্কারা সরকার। তবে রাশিয়া বলছে, শনিবার মাত্র কয়েক সেকেন্ডের জন্য তুরস্কের আকাশসীমায় ঢুকে পড়েছিল তাদের বিমানটি এবং আবহাওয়া খারাপ থাকার কারণেই এমনটি হয়েছিল। তবে রোববারের আকাশ সীমা লঙ্ঘণ নিয়ে কোনো বিবৃতি দেয়নি মস্কো।

এ ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র এবং তাদের সামরিক জোট ন্যাটো মস্কোর কড়া সমালোচনা করেছে।

ন্যাটো জোট বলেছে, রাশিয়া তুরস্কের আকাশসীমা লঙ্ঘণের যে কারণ ব্যক্ত করেছে তা গ্রহণযোগ্য নয়। ন্যাটো মহাসচিব ইয়েন্স স্টল্টেনবার্গ বলেছেন, ‘আকাশসীমা লঙ্ঘণের ঘটনাটি দেখে কোন দুর্ঘটনা বলে মনে হয়নি।’ ওই বিবৃতিতে তিনি আরো বলেন, ওই ঘটনায় রাশিয়া এখনো কোনো বাস্তবসম্মত ব্যাখ্যা দিতে পারেনি।






মন্তব্য চালু নেই