মেইন ম্যেনু

মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের আয়োজনে ভোলায় ৭দিন ব্যাপী হেলথ ক্যাম্প শুরু

ভোলায় কর্মজীবী ল্যাকটেটিং মাদার সহায়তায় তহবিল কর্মসূচী আ্ওতায় ২০১৪-১৫ অর্থ বছরের অধীনে মায়েদের জন্য ৭দিন ব্যাপী হেলথ ক্যাম্প শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার থেকে জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের আয়োজনে শহরের গাজীপুর রোডস্থ সিএন্ডবি কলনীর জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের অস্থায়ী কার্যালয়ে ক্যাম্প এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মো:সেলিম রেজা।

জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা জেবুন্নেছা বেগম এর সভাপত্বিতে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন জেলা সিভিল সার্জেন ডা: ফরিদ আহমেদ, পরিবার পরিকল্পনার উপ পরিচালক আবুল কালাম আজাদ,মেডিক্যাল অফিসার ডা.আফিফা ।

৭দিন ব্যাপী এই ক্যাম্পের আওতায় ভোলা পৌর সভার ৮৫০জন কর্মজীবী ল্যাকটেটিং মাদার সহায়তায় তহবিল কর্মসূচী আ্ওতায় সেবা প্রদান করা হবে।এছাড়াও কর্মসূচীর আ্ওতায় মায়েদেরকে ২বছর ধরে প্রতিমাসে ৫০০টাকা করে ভাতা প্রদান করা হবে।

ক্যাম্প উদ্ধোধন কালে বক্তারা বলেন,বর্তমান সরকার মাতৃমিত্যুা ও শিশু মিত্যুা রোধে,মাও শিশুর স্বাস্থ্য রক্ষা নরীর ক্ষমতায়ন এর জন্য একটি সময় উপযোগী প্রকল্প হাতে নিয়েছে। এই প্রকল্পের আ্ওতায় ভাতার অর্থ দিয়ে তারা কিছুটা হলেও নিজের পরিবারের জন্য উপকৃত হবে বলে মনে করেন।

জেলা প্রশাসক মো:সেলিম রেজা বলেন, বর্তমান সরকরা স্বাস্থ্যসেবা জনগনের দোড় গোরায় পৌছে দেয়ার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় এমডিজির লক্ষ্য মাত্রা পূরন করতে সম্ভব হয়েছে। আর ভবিৎতে ২০২১ সালের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে হলে এই ম্ওা শিশুদের স্বাস্থ্যসেবা বিকাশের ব্যাবস্থা করে দিতে হবে। এছাড়্ওা আমাদের সমাজ থেকে শিশু বিবাহ বন্ধ করার জন্য সবাইকে ঐক্য বদ্ধ ভাবে কাজ করতে হবে।

জেলা সিভিল সার্জেন ডা. ফরিদ আহমেদ বলেন, সুস্থ্য সন্তান ্ও সন্তানের মেধা বিকাশের জন্য শিশুদের ৬ মাস পর্যন্ত মায়ের বুকের দুধ খ্ওায়াতে হবে। এই সময় শিশুর জন্য মায়ের দুধের বিকল্প নেই। আর ৬মাস পূর্ন হলে শিশুদের বাড়তি খাবার দিতে হবে বলে তিনি জানান। ক্যাম্প শেষ হবে আগামী ২৪ আগস্ট পর্যন্ত।






মন্তব্য চালু নেই