মেইন ম্যেনু

মহড়ায় অংশ নিতে রুশ সেনারা পাকিস্তানে

রাশিয়ার সেনাবাহিনীর একটি দল পাকিস্তানে পৌঁছেছে। উদ্দেশ্য পাকিস্তান সেনাবাহিনীর সঙ্গে প্রথমবারের মতো যৌথ মহড়ায় অংশগ্রহণ। দুই সপ্তাহব্যাপী ওই মহড়ার নাম দেওয়া হয়েছে ‘বন্ধুত্ব ২০১৬’।

পাকিস্তান সেনাবাহিনীর বরাত দিয়ে আজ শুক্রবার দেশটির সংবাদপত্র ডেইলি পাকিস্তান জানিয়েছে, আগামীকাল শনিবার থেকে এ মহড়া শুরু হবে, চলবে আগামী ১০ অক্টোবর পর্যন্ত। ইতিহাসে এ প্রথমবারের মতো যৌথ মহড়ায় অংশ নিচ্ছে পাকিস্তান ও রাশিয়া।

কোথায় এ মহড়া অনুষ্ঠিত হবে, তা প্রকাশ করা হয়নি। তবে পাকিস্তান সেনাসূত্রে জানা যায়, পার্বত্য অঞ্চলেই নেওয়া হয়েছে মহড়ার প্রস্তুতি। উভয় দেশের প্রায় ২০০ সেনাসদস্য ওই মহড়ায় অংশ নেবেন।

ডেইলি পাকিস্তানে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, পাকিস্তান-রাশিয়ার এ মহড়া বাতিল করার জন্য রাশিয়ার প্রতি অনুরোধ জানায় ভারত। তবে রাশিয়া ভারতের অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করে।

চলতি বছর জানুয়ারি মাসে রাশিয়ার সেনাবাহিনীর কমান্ডার ইন চিফ ওলেগ সালিয়োকভ জানিয়েছিলেন, রাশিয়ার সেনাবাহিনী চার দেশের সঙ্গে সাতটি যৌথ মহড়ায় অংশ নেবে। এর মধ্যে পাকিস্তান, ভিয়েতনাম, মঙ্গোলিয়া ও ভারতের নাম আছে।

ভারতের সংবাদমাধ্যম দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, মস্কো ও ইসলামাবাদের মধ্যে প্রতিরক্ষা সম্পর্ক বাড়ানোর মধ্যেই এ মহড়ার আয়োজন কর হলো। আর এমনই সময় যখন ইসলামাবাদ মস্কোর কাছ থেকে অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমান কেনার কথা ভাবছে।

মস্কো ও ইসলামাবাদের এই নতুন সম্পর্ক স্নায়ুযুদ্ধ-পরবর্তী বিশ্বরাজনীতিকে বদলে ফেলছে। বিশ্বরাজনীতিতে রাশিয়ার অন্যতম প্রতিপক্ষ যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম মিত্র ছিল পাকিস্তান। কিন্তু পাকিস্তানে ওসামা বিন লাদেনের উপস্থিতি ও পরে পাকিস্তানে প্রবেশ করে তাকে হত্যা করা, এ রকম বিষয়ে পাক-যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্ক এখন অবনতির দিকে।

দি ইন্ডিয়ান এক্সেপ্রেসের প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ১৫ মাস ধরে পাকিস্তানের সামরিক বাহিনীর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা রাশিয়ায় যাওয়া-আসা করছেন। ওই সময়ের মধ্যেই ইসলামাবাদ মস্কোর কাছ থেকে চারটি এমআই-৩৫ হেলিকপ্টার কিনে নেয়, যা যুদ্ধের সময় ব্যবহৃত হয়।






মন্তব্য চালু নেই