মেইন ম্যেনু

মাওয়ের মূর্তি ভেঙে দিল চীন

চীনে কয়েক দিন আগে নির্মিত মাও সে তুংয়ের বিশাল স্বর্ণমূর্তিটি সরিয়ে নিয়েছে দেশটির সরকার। চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম পিপলস ডেইলি জানিয়েছে, মূর্তিটি সরকারিভাবে অনুমদিত ছিল না।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কয়েকদিন আগে চীনের হেনান প্রদেশের টংজু রাজ্যের প্রত্যন্ত একটি গ্রামের এক কৃষিভূমিতে তৈরি মাওয়ের এই বিশাল মূর্তিটি তৈরি করা হয় ১২০ ফুট উঁচু করে। দেয়া হয় স্বর্ণের প্রলেপ। এতে খরচ পরে প্রায় তিন মিলিয়ন ইউয়ান বা চার লাখ ৬০ হাজার ডলারের মতো।

টংজু রাজ্যের ভূমি কর্মকর্তাও মূর্তিটি সরিয়ে দেয়ার বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তবে কী কারণে তা সরিয়ে দেয়া হলো তা জানাতে পারেননি তারা।

মাও সে তুংয়ের ১২২তম জন্মদিনও জাঁকজমকপূর্ণভাবে পালন করে ঝুশিগ্যাং গ্রামবাসীরা। নির্মাণের পর পরই এটি বিশ্ব মিডিয়ায় আলোড়ন তোলে। সামাজিক যোগাযোগের বিভিন্ন মাধ্যমে এই মূর্তি নিয়ে সমালোচনারও ঝড় ওঠে। কেউ কেউ বলেন, এটা শুধু শুধু সম্পদ নষ্ট করা হয়েছে। আবার কেউ কেউ বলেন, ভুল জায়গায় স্থাপন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, মাওয়ের আন্দোলনের কারণে ১৯৫০ দশকের যে দুর্ভিক্ষ হয়েছিল তাতে হেনান প্রদেশেই এর সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়েছিল। মাও সেতুংয়ের তৎকালীন রাজনৈতিক আন্দোলনে কয়েক মিলিয়ন লোকের মৃত্যু হয়েছিল।

এতো মৃত্যুর অভিযোগ সত্ত্বেও বর্তমান প্রেসিডেন্ট জি পিংসহ চীনের অনেকেই তাকে সম্মান করে থাকে। জি পিং তাকে ‘মহান ব্যক্তিত্ব’ বলে সম্বোধন করেন।






মন্তব্য চালু নেই