মেইন ম্যেনু

সবজী ক্ষেতে ছাগল প্রবেশ করায় গৃহবধূকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন

মাগুরা প্রতিনিধি: মাগুরা সদর উপজেলার কুকনা গ্রামে সবজী ক্ষেতে ছাগল প্রবেশ করায় শুক্রবার বিকালে এক গৃহবধুকে গাছের সাথে বেধে ব্যাপক নির্যাতন করেছে দুর্বৃত্তরা। নির্যাতিত মালতী রাণী কুকনা গ্রামের রতন কুমার শীলের স্ত্রী।

পত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী জানায়, শুক্রবার বিকালে মালতী রানীর পোষা ছাগল বাড়ির পার্শ্ববর্তী ভরত কুমার ঘোষের সবজী ক্ষেতে ডুকে বাগানের ক্ষতি করে। এ ঘটনায় এলাকার প্রভাবশালী ভরত কুমার ও তার সমর্থকরা উত্তেজিত হয়ে মালতী রাণীকে গাছে বেঁধে বেধম মারধর করে।

এবিষয়ে মাগুরার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার সুদর্শন কুমার রায় জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে মালতী রানীকে উদ্ধার করে। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারে নাই পুলিশ।

মালতী রানী বলেন, তার স্বামী রতন কুমার শীল একটি সেলুনে (নাপিত) কাজ করেন এবং তিনি সংসারে বাড়তি আয় উপার্জনের লক্ষ্যে গরু-ছাগল, হাঁস-মুরগী পালন করেন। কিন্তুী প্রতিবেশী ভরত কুমার প্রভাবশালী হওয়ায় মাঝে মধ্যে তাকে হুমকী ধামকী দিয়ে আসছে। তিনি হুমকি ধামকির বিষয়টি বেশ কয়েকবার এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গকে জানালে ভরত কুমার আরও বেশি উত্তেজিত হয়ে পড়েন। এবং তার একটি পোষা গুরু চুরি করে নিয়ে যায়। গরু চুরির বিষয়টি তিনি মাগুরা সদর থানায় অবহিত করলে ভরত কুমার, স্বপন ঘোষ, রাজকুমার, উত্তম, নৃপেন, অসীমসহ বেশ কয়েকজন রেগে শুক্রবার তার নামে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে গাছের সাথে বেধে বেধম মারধর করে নির্যাতন চালায়।

এ বিষয়ে ভরত কুমার জানান, মালতী রাণীকে শুধু মাত্র গাছে বেঁধে রেখে সায়েস্তা করতে চেয়েছিলেন । তবে মারধরের বিষয়টি অস্বিকার করেন তিনি।






মন্তব্য চালু নেই