মেইন ম্যেনু

মাতৃগর্ভে শিশু গুলিবিদ্ধ ।। অপরাধীরা যে দলের হোক শাস্তি পাবে : চুমকি

মাগুরায় মাতৃগর্ভে গুলিবিদ্ধ শিশু ও মাকে দেখতে মঙ্গলবার সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে যান নারী ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি। এ সময় তিনি ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির উপযুক্ত আশ্বাস দেন।

প্রতিমন্ত্রী চিকিৎসাধীন মা ও শিশুর খোঁজখবর নেন। শিশু ও মায়ের চিকিৎসার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে মা নাজমা বেগমের হাতে ৫০ হাজার টাকা অনুদানের চেক তুলে দেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বর্তমান সরকার অন্যায়কে প্রশ্রয় দেয় না। এ ঘটনায় ছয়জনকে আটক করা হয়েছে। আরও আটক করা হবে। অপরাধীরা যে দল বা গোত্রের হোক না কেন তাদের শাস্তি দেওয়া হবে।’

চুমকি বলেন, ‘১৩ দিন ধরে শিশুটি হাসপাতালে ভর্তি আছে। মা ও শিশু ভাল আছে। এ সব ঘটনা যারা ঘটনায় তারা অমানুষ। তাদের সবাইকে শাস্তি দেওয়া হবে।’

শিশুটি ঢামেক হাসপাতালের শিশু সার্জারি বিভাগের স্পেশাল কেয়ার বেবি ইউনিটে (স্ক্যাবু) রাখা হয়েছে। শিশুটির মা নাজমা বেগম ওই হাসপাতালের প্রসূতি ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন।

ঢামেক হাসপাতালের সিভিল সার্জারি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. কানিজ হাসিনা দ্য রিপোর্টকে জানান, শিশু ও মা ভাল আছে। তবে এখনও শিশুর শঙ্কা কাটেনি।

ঢামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মিজানু রহমান উপস্থিত ছিলেন।

২৩ জুলাই মাগুরায় যুবলীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের সময় গুলিবিদ্ধ হন অন্তঃসত্ত্বা নাজমা বেগম। মাগুরা সদর হাসপাতালে জরুরি অস্ত্রোপচারের পর তিনি একটি কন্যা সন্তান জন্ম দেন। জন্মের ১১ দিন পর সোমবার মা-মেয়ের প্রথম দেখা হয়।

গুলিবিদ্ধ শিশু ও মাকে দেখার পর প্রতিমন্ত্রী ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) চিকিৎসাধীন নির্যাতিত নারীদের দেখতে যান।






মন্তব্য চালু নেই