মেইন ম্যেনু

১১টি বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে অতিথি মন্ত্রীসহ বক্তা ৮জন

জাতীয় প্রেস ক্লাবের তিনতলায় দরিদ্র শিশুদের মাঝে শনিবার সকালে ঈদ বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে রিহেবিলেটেশান অব স্কাই টাচ এ্যাসোসিয়েশন (রোসটা) নামে একটি সংগঠন। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন। অনুষ্ঠানে মন্ত্রীসহ উপস্থিত ছিলেন আরও ৭ বক্তা। বক্তাদের আলোচনা শেষে বিতরণ করা হয় মাত্র ১১টি কাপড়;

এরপর ঘোষণা দিয়ে শেষ হয় বিতরণ অনুষ্ঠান। ১১টি বস্ত্র বিতরণের এমন আয়োজন দেখে উপস্থিত অনেকেই ঘটনাস্থলে অবাক হন। মিডিয়ায় প্রচার পাওয়ার জন্য এমন আয়োজন করেছেন বলে মন্তব্য করেন উপস্থিত শ্রোতাদের কেউ কেউ।

অনুষ্ঠানের অন্য অতিথিরা হলেন— ভাসানী ন্যাপের চেয়ারম্যান এম. আক্তারুজ্জামান, আয়োজক সংগঠনের সভাপতি রোজী চৌধুরী, সহ-সভাপতি কাশেম চৌধুরী, মডার্ন ডায়াগনস্টিক সেন্টারের উপদেষ্টা কামরুদ্দীন হিরা, সাংবাদিক রাজেন্দ্র চন্দ্র মনপুরা, কারিতাস সংগঠনের গীতি বাড়ৈ, সাপ্তাহিক শীর্ষ খবরের সম্পাদক মুহাম্মদ মনিরুজ্জামান (শাশ্বত মনির)।

মতিঝিলের ৮৭ রেড ক্রিসেন্ট চেম্বার (বর্তমানে সংস্কারাধীন) থেকে অনিয়মিত প্রকাশিত সাপ্তাহিক শীর্ষ খবরকে অনুষ্ঠানের মিডিয়া পার্টনারও রাখা হয়। বেলা ১১ টায় শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে আলোচনা চলে প্রায় দুই ঘণ্টাব্যাপী। এরপর বস্ত্র বিতরণ করেন মন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকা মালিবাগের এক শ্রোতা মো. আলাউদ্দীন বলেন, ‘প্রেসক্লাবে যারা এসে অনুষ্ঠান করে তারা মিডিয়ার প্রচারণা পাওয়ার জন্যই করে। আজকের অনুষ্ঠান আবার নতুন কী। এত আয়োজন না করে নীরবেই বস্ত্র বিতরণ করলেই তারা পারত।’

আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে মন্ত্রী মোজাম্মেল হক বলেন, ‘এ সব দরিদ্র মানুষদের দায়িত্ব নিতে হবে সমাজের বিত্তবানদের। সবচেয়ে ভাল হয়, একটি করে পরিবারের দায়িত্ব যদি বিত্তবানরা নেন। তাহলে একটি করে পরিবার দাঁড়াবে, যা দেশের উন্নতিতে ভূমিকা রাখবে।’

মিডিয়া পার্টনার শীর্ষ খবরের সম্পাদক শাশ্বত মনির অনুষ্ঠান প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘অনুষ্ঠানে কম সংখ্যক বস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে। এর উদ্দেশ্য হল যাতে আমাদের কার্যক্রম দেখে মানুষ উৎসাহ পায়।’ সোমবার নারায়ণগঞ্জে আরও ২০০ বস্ত্র বিতরণ করা হবে জানান মনির।

তবে রোসটার সভাপতি রোজী চৌধুরী জানিয়েছেন, নারায়ণঞ্জ নয় ঢাকার বিভিন্ন স্কুলে দরিদ্র শিশুদের মাঝে পর্যায়ক্রমে এ সব বস্ত্র বিতরণ করা হবে।

তিনি বলেন, ‘আমরা বস্ত্র বিতরণ করেছি সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে। মিডিয়ায় প্রচার পাওয়া আমাদের উদ্দেশ্য নয়। প্রেস ক্লাবে সব বস্ত্র বিতরণের অনুমতি ছিল না।’






মন্তব্য চালু নেই