মেইন ম্যেনু

মাত্র ১৫ মিনিটে নারিকেলের লাড্ডু

নারিকেল যারা পছন্দ করেন তাদের প্রিয় খাবারের তালিকায় প্রথমেই থাকে নারিকেলের লাড্ডু। যেখানে সেখানে কিনতে পাওয়া যায় এই লাড্ডু, কিন্তু পূজা-পার্বন ছাড়া বাড়িতে তেমন একটা তৈরি করা হয় না। বেশিরভাগ মানুষই মনে করেন এটা তৈরি করা ভীষণ ঝামেলার ব্যাপার। না, মোটেও ঝামেলার ব্যাপার নয়। চলুন আজ দেখে নিই এমন একটি রেসিপি যাতে সময় লাগবে খুবই কম। ট্রাডিশনাল রেসিপি নয় বটে কিন্তু মাত্র ১৫ মিনিটে তৈরি হয়ে যাবে জিভে জল আনা এই লাড্ডু।

উপকরণ

– ১ কাপ কনডেন্সড মিল্ক

– ১ কাপ শুকনো, কোরানো নারিকেল

– ১২টি কাঠবাদাম, কুচি করা

– ১ চা চামচ মাখন অথবা ঘি

প্রণালী

১) কড়াই বা তাওয়ায় ঘি গরম করে নিন। এতে কাঠবাদামগুলো টেলে নিন বাদামি করে। ঘি ঝরিয়ে উঠিয়ে রাখুন।

২) একই কড়াইতে কন্ডেন্সড মিল্ক এবং নারিকেল দিয়ে দিন। ভালো করে মিশিয়ে নিয়ে কম আঁচে নাড়তে থাকুন যতক্ষণ না মিশ্রণ ঘন হয়ে যায় এবং আঠালো হয়ে চামচের সাথে লেগে যেতে থাকে। এ সময়ে আঁচ বন্ধ করে দিন।

৩) এতে কাঠবাদাম কুচি দিয়ে দিন। মিশিয়ে নিন চামচ দিয়ে। এরপর ঠাণ্ডা হতে দিন।

৪) হাতে ধরার মত ঠাণ্ডা হয়ে এলে এগুলো দিয়ে নিজের পছন্দমত আকারের লাড্ডু তৈরি করে নিন। হাতে অল্প করে ঘি মাখিয়ে নিলে কাজটা করা সহজ হবে। লাড্ডু তৈরি হলে এগুলো শুকনো কোরানো নারিকেলে গড়িয়ে নিন।

এই লাড্ডু আপনি এয়ারটাইট বয়ামে রেখে দিতে পারেন। ৪ দিন পর্যন্ত ফ্রিজে রাখা যাবে। তবে খাওয়ার কিছুক্ষন আগে ফ্রিজ থেকে বের করে রেখে দিন, নয়তো বেশি শক্ত থাকবে, খেতে পারবে না।

টিপস

– মিষ্টি বেশি খেতে চাইলে কন্ডেন্সড মিল্কের পরিমাণ বাড়িয়ে দিন। মিষ্টি কম খেতে চাইলে নারিকেলের পরিমাণ বাড়িয়ে দিন

– কাঠবাদাম ছাড়াও আপনার পছন্দের যে কোনো বাদাম ব্যবহার করতে পারেন অথবা বাদাম একেবারেই বাদ দিতে পারেন রেসিপি থেকে

– টাটকা কোরানো নারিকেল ব্যবহার করতে পারেন শুকনো নারিকেলের বদলে কিন্তু সেক্ষেত্রে তা বেশিদিন রাখা যাবে না আর এটা রান্না করতেও বেশি সময় লাগবে।

সুত্র: এডিবল গার্ডেন






মন্তব্য চালু নেই