মেইন ম্যেনু

মানানসই ফ্যাশনের উপকারী টিপস

বেড়াতে যাওয়া হোক, কিংবা ঘরোয়া পার্টি, কোন পোশাকে আপনাকে ভাল মানাবে, এই দ্বিধাতেই কেটে যায় অনেকটা সময়। কোন পোশাকের সঙ্গে কোন গয়না মানানসই হবে, এমন হাজারও প্রশ্ন দেখা দেয় মেয়েদের মনে। নিজেকে ফ্যাশনেবল রাখতে মানানসই কিছু টিপস জেনে রাখা প্রয়োজন, যা পরবর্তীতে আপনাকে উপকৃত করবে।

এক্ষেত্রে প্রত্যেক মেয়ের যে বিষয়গুলো মাথায় রেখে চলা উচিত –

জামাকাপড়ের সঠিক লেন্থ
ফ্যাশনেবল থাকতে হলে ফ্যাশনের প্রতিটি খুঁটিনাটি জানা প্রয়োজন। নিজের গড়ন অনুযায়ী বেছে নেওয়া চাই সঠিক লেন্থের পোশাক।

কোয়ালিটি এবং কোয়ান্টিটি
সবসময় স্টাইলিশ পোশাক বেছে নিতে হবে। তবে অবশ্যই কোয়ালিটির কথা মাথায় রেখে। অত্যাধিক ফ্যাশনেবলের থেকে আরামের ব্যাপারটিও মাথায় রাখতে হবে।

নতুনত্ব
আপনার মনের মতো করে পোশাকে স্টাইল জুড়লে পাবেন নতুন কিছু। যা আপনাকে আর পাঁচজনের চেয়ে আলাদা করে তুলবে।

সাধারণ
যতই ফ্যাশনেবল জামাকাপড় পড়ুন না কেনও, সাবলীলতার কোনও তুলনা নেই। সাদাসিধে সাজগোছ অনেক বেশি মানিয়ে যায় ক্ষেত্র বিশেষে।

নিজস্বতা
অন্যদের নকল না করে, নিজের ফ্যাশনে আনতে হবে কিছু নতুনত্ব। যা অন্যদের থেকে অনেক আলাদা ও নজরকাড়া।

ফ্যাশন ট্রেন্ড
আপনার নিজস্ব ফ্যাশন যাই হোক না কেন, বর্তমান ফ্যাশন ট্রেন্ডের কথা মাথায় রেখে চলতে হবে।

অ্যাক্সেসরিজ বা গয়না
পোশাকের সঙ্গে মানানসই গয়না বেছে নেওয়াটা জরুরি। নয়তো মাটি হয়ে যেতে পারে আপনার স্টাইল স্টেটমেন্ট।

অহেতুক খরচ
ফ্যাশন সচেতন থাকা ভালো। তবে ফ্যাশনেবল থাকতে অহেতুক টাকা খরচ করা একেবারেই উচিৎ নয়।

সঠিক ফিটিংস
জামাকাপড়ের যথাযথ ফিটিংস বদলে দিতে পারে আপনার লুকস।

কিছু বেসিক পোশাক
নিত্যনতুন জামাকাপড় কেনা সম্ভব নয়। নিজের ওয়ার্ড্রোবে রাখতে পারেন ব্লেজার, ডেনিম, কয়েকটি হ্যান্ডব্যাগ, লেদার জ্যাকেট। যতই দিনকাল বদলাক, বদলাক ফ্যাশন ট্রেন্ড, এগুলো চিরকালই ফ্যাশনেবল থাকবে।






মন্তব্য চালু নেই