মেইন ম্যেনু

‘মানুষখেকো’ কীট ছড়িয়ে পড়ছে যে সকল স্থানে

মানুষের মাংস খেকো কীট ছড়িয়ে পড়ছে যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ায়। হত্যা করে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) ফেলে যাওয়া মরদেহের পচন থেকে এই কীটের মাধ্যমে লেইশমানিসিস রোগ ছড়িয়ে পড়ছে।

কুর্দিশ রেড ক্রিসেন্ট জানিয়েছে, এই কীট ধীরে ধীরে আক্রান্তকে খেয়ে ফেলে। গত পাঁচ বছরের ভয়াবহ যুদ্ধে বিধবস্ত সিরিয়ার স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে বলে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সতর্ক করে দিয়েছে। এই যুদ্ধে তিন লাখ মানুষ নিহত হয়েছে। এ থেকে নানা ধরনের নোংরা রোগ ছড়িয়ে পড়েছে।

কুর্দিশ রেড ক্রিসেন্টের দিলকাশ ইসা বলেন, ‘নিরপরাধ মানুষ হত্যা এবং তাদের মরদেহ রাস্তায় ফেলে রাখাসহ আইএসের ঘৃণ্য কর্মকাণ্ডের কারণে লেইশমানিসিস রোগ ছড়িয়ে পড়ছে।’

এক সিরিয়ান কুর্দি যোদ্ধা সংবাদ সংস্থাগুলোকে বলেন, ‘আমাদের আগে এই রোগ সম্পর্কে কোনো ধারণা ছিল না। আমরা প্রায় চার বছর যুদ্ধক্ষেত্রে যুদ্ধ করেছি এবং মূলত তাল হামিস, হুন ও কোসা এলাকার যুদ্ধক্ষেত্র থেকে এই রোগের উৎপত্তি হয়েছে।’

২০১৩ সালের সেপ্টেম্বরে সহিংস ক্ষুধার্ত পরজীবী থেকে এই রোগের উৎপত্তি এবং এটি মাছিবাহিত। কিন্তু ২০১৪ সালের মাঝামাঝি সময়ে ৫০০ মানুষ এই ভয়াবহ কীটের দ্বারা আক্রান্ত হয়।






মন্তব্য চালু নেই