মেইন ম্যেনু

মানুষের পেটে জন্ম নিল হাতির শিশু!

মাঝে মাঝে খবরও গাছে ওঠে। যদি তারমধ্যে থাকে রসাল কোনো গল্প। শিক্ষিত, সমাজ সচেতন ও বিজ্ঞানমনস্ক মানুষ মাঝে মধ্যে ঠেলায় পড়লে যেমন দশ আঙুলে এগারোখানা আংটি পড়েন ঠিক তেমনি ফেসবুকে শেয়ার, লাইক করে মশগুল আড্ডা মারে ভুয়ো খবরকে সত্যি ভেবেও।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় হাতির মতো একটি শিশুর ছবি ভাইরাল হয়ে উঠেছে। ‘হাজলার ডট কম’ নামে এক ওয়েবসাইট দাবি করেছে, নরওয়ের এক দম্পতি জন্ম দেয় হাতির মতো দেখতে একটি ‘হাইব্রিড’ শিশুর। ছবিতে দেখা গেছে নাকের বদলে অবিকল হাতির মতো শুঁড় ও হাত-পা অসম্পূর্ণ। সেই ওয়েবসাইটে আরও দাবি করা হয়, ইতোমধ্যে নরওয়ের প্রবাসী ভারতীয়রা শিশুটিকে দেখার জন্য তাদের বাড়ির সামনে ভিড় জমায়। গণেশের আর্বিভাব হয়েছে এই বিশ্বাসে শিশুটির বাড়ির সামনে ফুল নিয়ে হজির হয়েছে তারা। এতে ভীষণ অখুশি শিশুটির বাবা-মা আলেক্সান্ডার ও লোলা অ্যান্ডারসন।

হাজলার ওয়েবসাইটের দাবি, শিশুটির পরিবার জানিয়েছে তাদের সন্তানকে ভারতের কাছে বিক্রি করে দেবে যদি সারাজীবন তাজমহলে থাকতে দেয়।

এই খবর ও ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পর হোয়াক্স স্লেয়ার নামক ওয়েবসাইট এই খবরকে ভিত্তিহীন বলে জানায়। সেই ওয়েবসাইটে জানানো হয়, হাজলার ডট কমে প্রকাশিত খবর সম্পূর্ণ ভিত্তীহীন, গুজব। পৃথিবীতে এমন কোনো সন্তানের জন্ম হয়নি। ওই নরওয়ে দম্পতির চরিত্রও ভুয়া বলে দাবি করা হয়। খবরের সত্যতা খুঁজতে গিয়ে ওই ওয়েবসাইট দাবি করে, এক অস্ট্রেলিয়ান চিত্রকর পাত্রিসিয়া পিক্কিনি এই ছবিটি আঁকেন। তিনি একজন বিখ্যাত স্থাপত্যকর। মানুষ ও পশুর সংমিশ্রণে তার আঁকা অনেক ছবি মানুষের নজর কেড়েছে।

সূত্র: ২৪ ঘণ্টা






মন্তব্য চালু নেই