মেইন ম্যেনু

মানুষের মত হৃদস্পন্দন হয় রোবটেরও!

মানুষের মত হৃদস্পন্দন হয় রোবটের। মানুষ যেমন পরে গেলে উঠে দাঁড়ায়। এই রোবটটিও তাই। মানুষের এই দুইটি সাদৃশ্য সম্পন্ন এই রোবট আবিষ্কার করলো বিশ্ববিখ্যাত প্রযুক্তি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হিটাচি। রোবটটির নাম এমিইউ৩।

এমিইউ সিরিজের এটি তৃতীয় রোবট। এর আগে এমিইউ ১ এসেছিল ২০০৫ সালে এবং এমিইউ২ এসেছিল ২০০৭ সালে। এই রোবটগুলো যেকোনো ছোট খাট বাধা অতিক্রম করতে পারতো এবং ঘণ্টায় ৪ মাইল বেগে চলতে পারতো। রোবটটির ওজন মাত্র ১৫ কেজি।

দুর্ভাগ্যবশত নতুন এই রোবটটি তৈরি করতে সময় লেগেছে প্রায় ১০ বছর। লাল-সাদার এই রোবটটি দেখতে আগের রোবটগুলোর মতোই।

জাপানি প্রতিষ্ঠানের তৈরি এই রোবটটি মানুষের জন্য কাস্টমার সার্ভিসের কাজ করতে পারবে। এই রোবটটিতে এমন সফটওয়্যার ব্যবহার করা হয়েছে যে সফটওয়্যারটি মানুষের কণ্ঠ শনাক্ত করতে পারে এবং প্রশ্নের জবাব দিতে পারে। রোবটটি পরে গেলে নিজে নিজেই উঠে দাঁড়ানোর ক্ষমতা রাখে।

রোবটটির বুকে একটি এলইডি লাইট রয়েছে। যা বিলিঙ্ক অবস্থায় থাকে। এই লাইটটির বিলিঙ্ক অবস্থা প্রমাণ করে রোবটটি জীবিত।

শুক্রবার রোবটটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনে দেখা গেছে, এমিইউ৩ ইংলিশে একজন ভ্রমণকারীর সাথে কথোপকথন করছে।






মন্তব্য চালু নেই