মেইন ম্যেনু

মানুষ না পেয়ে, গরু ও ছাগল ধরে নিয়ে গেল বিএসএফ

এবার কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার নুনখাওয়া চৌদ্দকুড়ি সীমান্ত থেকে বাংলাদেশিদের ২৩টি গরু ও তিনটি ছাগল ধরে নিয়ে গেছে ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)। এসব উদ্ধারে বিজিবির প্রস্তাবের তিন দিনেও সাড়া দেয়নি বিএসএফ। এ ঘটনায় উদ্বিগ্ন সীমান্তবাসী।

চৌদ্দকুড়ি সীমান্তবাসীরা জানায়, গত বুধবার সীমান্ত এলাকার বালারহাট গ্রামের মজিবর রহমানের ৯টি গরু, মনছার আলীর চারটি গরু, জসিম মিয়ার তিনটি এবং ইউনুছ আলীর তিনটি ছাগলসহ ছয় জনের বেঁধে রাখা বাংলাদেশিদের ২৩টি গরু ও তিনটি ছাগল আকস্মিকভাবে ধরে ভারতে নিয়ে যায় বিএসএফ।

বিষয়টি বিজিবির চৌদ্দঘুড়ি বিওপি ক্যাম্পে জানানো হয়। আলোচনার মাধ্যমে গরু ও ছাগলগুলো ফেরত দিতে বিজিবির পক্ষ থেকে বিএসএফকে চিঠি দেয়া হলেও তারা সাড়া দেয়নি।

নারায়নপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবু হানিফ শুক্রবার দুপুরে জানান, গরু-ছাগল ধরে নিয়ে গেলে স্থানীয় বিওপি ক্যাম্পে জানানো হয়েছে। তিন দিনেও সেগুলো উদ্ধার হয়নি। স্থানীয় বিজিবি জানিয়েছে, আবেদনে বিএসএফ সাড়া দেয়নি। বিকেলে বিজিবির সিও মহোদয়ের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করবো।

এ বিষয়ে চৌদ্দকুড়ি ক্যাম্পের কমান্ডার নায়েক সুবেদার নাম প্রকাশ না করে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সকল তথ্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। এ বিষয়ে তিনি কথা বলবেন।

বিজিবির-৪৫ কুড়িগ্রাম ব্যাটালিয়নের পরিচালক লে. কর্নেল জাকির হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ভারতের শিয়ালদহ ক্যাম্পের বিএসএফ গরু ও ছাগল নিয়ে গেছে।

বিএসএফের পক্ষে থেকে জানানো হয়, বাংলাদেশিদের গরু ও ছাগল সন্ধ্যার দিকে ভারতের সীমান্ত কাছাকাছি যাওয়ায় তারা আটক করেছে।

খবর পেয়ে পতাকা বৈঠকের জন্য তাদের চিঠি দেয়া হয়েছে। এগুলো ফেরত আনার জন্য চেষ্টা অব্যাহত রেখেছি।






মন্তব্য চালু নেই