মেইন ম্যেনু

মামলায় জিতে রেলগাড়ি পেলেন কৃষক

মামলায় জিতে রেলগাড়িও যে পাওয়া যায় এ রকম মামলার নজির বোধ হয় আর কেউ কোনও দিন দেখেননি। এ‌মনই একটি নজিরবিহীন ঘটনা ঘটল ভারতের লুধিয়ানার এক কৃষকের সঙ্গে। ওই কৃষকের জমি রেল কর্তৃপক্ষ লুধিয়ানা–চণ্ডীগড় রেল লাইন তৈরির জন্য নিয়েছিলেন। কিন্তু তাকে কোনও ক্ষতিপূরণ দেননি।

যথারীতি ওই কৃষক ক্ষতিপূরণ চেয়ে আদালতের দ্বারস্থ হন। আদালত তাকে ক্ষতিপূরণ হিসাবে একটা আস্ত ট্রেন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল। ২০১৫ সাল থেকে ভারতের পাঞ্জাবের সম্পূর্ণ সিং ক্ষতিপূরণের জন্য লড়ছেন। রেল কর্তৃপক্ষ তার কাছ থেকে নতুন রেল লাইন বানানোর জন্য ক্ষতিপূরণ না দিয়েই জমি ছিনিয়ে নেন।

সম্পূর্ণ সিং সে সময় মামলাটি জিতলেও রেল কর্তৃপক্ষ ক্ষতিপূরণ দিতে অস্বীকার করেন। চলতি বছরের জানুয়ারিতে আবার আদালতে আবেদন জানান সম্পূর্ণ সিং। শুক্রবার সিংয়ের আইনজীবী জানান, ক্ষতিপূরণের ১ কোটি টাকা না দেওয়া হলে আদালত একটা আস্ত এক্সপ্রেস ট্রেনই তাকে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।

আইনজীবী রাকেশ গান্ধী বলেন, ‘‌আমরা রেল কর্তৃপক্ষকে প্রথমত অনুরোধ করব আমার মক্কেলের ক্ষতিপূরণের টাকা দিয়ে দেওয়ার জন্য।’‌ বিচারক জসপাল বর্মা লুধিয়ানার স্টেশন মাস্টারের অফিসটিও সম্পূর্ণ সিংকে দেওয়ার নির্দেশ দেন। এই স্টেশনের ওপর দিয়েই সম্পূর্ণ সিংয়ের এক্সপ্রেস ট্রেন যাবে।

এই শুনানির পরে বুধবার সিং ও তার আইনজীবী আদালতের নির্দেশে লুধিয়ানা স্টেশনে যান। এক্সপ্রেস ট্রেনের চালককে আদালতের সব তথ্য হস্তান্তর করা হয়। আদালতের নির্দেশ অনুসারে, যাত্রীদের যাতে কোনও অসুবিধা না হয়, সে কথা মাথায় রেখে ট্রেনের চালক নিজের মতো করেই যাত্রীদের গন্তব্যে পৌঁছে দেবেন।

শনিবার আদালতে এই মামলার শুনানির আগে পর্যন্ত নিউ দিল্লি–অমৃতসর ২০ কোচের এক্সপ্রেস ট্রেন নিয়ন্ত্রণ করবেন পাঞ্জাবের কৃষক সম্পূর্ণ সিং। সিংয়ের আইনজীবী বলেন, ‘‌রেল টাকা দিতে না পারলে আদালত ট্রেনটির নিলাম করার নির্দেশ দেবেন।’‌






মন্তব্য চালু নেই