মেইন ম্যেনু

মামলা করতে যাচ্ছেন গেইল

মানহানির অভিযোগে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের সবচেয়ে বড় সংবাদ মাধ্যম ফেয়ারফ্যাক্স মিডিয়ার বিরুদ্ধে মামলা করতে যাচ্ছেন ক্রিস গেইল। মিডিয়াটির অভিযোগ ২০১৫ ওয়ানডে বিশ্বকাপে এক নারীর সামনে অশালীনভাবে গেইল নিজেকে উপস্থাপন করেছিলেন। আর এমন অভিযোগে বেশ বিব্রত ও বিরক্ত ক্রিস গেইল।

শুরু থেকেই এমন অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন ক্যারিবীয়ান ব্যাটিং দানব। তবে এবার আর কথা নয়, ফেয়ারফ্যাক্স এর বিরুদ্ধে গেইল মানহানির মামলা করতে যাচ্ছেন বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদ গনমাধ্যম দ্যা গার্ডিয়ান।

অস্ট্রেলিয়ায় চলমান বিগব্যাশ টুর্নামেমেন্টের এক ম্যাচে লাইভ সাক্ষাতকারে চ্যানেল টেনের এক মহিলা সাংবাদিককে ডেটিংয়ে যাওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন গেইল। পরে অবশ্য ক্ষমাও চেয়েছিলেন। কিন্তু তাতে মন গলেনি গেইলের টিম কর্তৃপক্ষের। গেইলকে ১০ হাজার অস্ট্রেলিয়ান ডলার জরিমানা করে তার দল মেলবোর্ন রেনেগেইডস।

ওই ঘটনার পর ফেয়ারফ্যাক্স মিডিয়া জানায়, গত বিশ্বকাপেও নাকি এক মহিলার সঙ্গে অশোভন আচরণ করেছিলেন গেইল। তাদের ভাষ্যমতে, ‘বিশ্বকাপের সময় ড্রেসিংরুমে কাজ করার জন্য প্রবেশ করেছিলেন এক মহিলা। তিনি ভেবেছিলেন সে সময় ওয়েস্ট ইন্ডিজের খেলোয়াড়রা মাঠে রয়েছেন। রুমে ঢুকে তিনি তোয়ালে পড়া ক্রিস গেইলকে দেখতে পান। এরপর গেইল নিজেকে অশালীনভাবে উপস্থাপন করে কথা বলেন।’

তবে ফেয়ারফ্যাক্স সংবাদমাধ্যমের প্রকাশিত অভিযোগটি গেইল জোরালোভাবে অস্বীকার করেছেন বলে জানিয়েছেন তার ম্যানেজার সাইমন আউটেরি। এক বিবৃতিতে তিনি জানান, ‘এমন অস্বীকার সত্ত্বেও ফেয়ারফ্যাক্স ধারাবাহিকভাবে অসত্য আর মানহানিকর এই অভিযোগ ছেপে যাচ্ছে, যেটা বিশ্বজুড়ে সংবাদমাধ্যমে আবার প্রকাশিত হয়েছে। ফলে গেইল এই মিডিয়ার বিরুদ্ধে মানহানির জন্য আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করতে অস্ট্রেলিয়ার শীর্ষ একজন সংবাদমাধ্যম বিষয়ক আইনজীবীকে দায়িত্ব দিয়েছে।’






মন্তব্য চালু নেই