মেইন ম্যেনু

মামলা বাতিলে তারেক সাঈদের আবেদন খারিজ

বহুল আলোচিত নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের ঘটনায় দায়ের করা মামলা বাতিল চেয়ে মামলার আসামি প্রাক্তন র‌্যাব কর্মকর্তা তারেক সাঈদের আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট।

মঙ্গলবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি আমির হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে তারেক সাঈদের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট গোলাম কিবরিয়া। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মনিরুজ্জামান কবির।

এর আগে গত ১৩ মার্চ তারেক সাঈদের আবেদনের শুনানি শেষে আদেশের জন্য আজকের দিন ধার্য করেছিলেন হাইকোর্ট।

গত ৭ মার্চ মামলা বাতিল চেয়ে করা তারেক সাঈদের আবেদন শুনতে বিব্রতবোধ করেন হাইকোর্ট। পরে প্রধান বিচারপতি তারেক সাঈদের আবেদন শুনতে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন।

২০১৪ সালের ২৭ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলাম, তার বন্ধু মনিরুজ্জামান স্বপন, তাজুল ইসলাম, লিটন ও গাড়িচালক জাহাঙ্গীর আলম এবং আইনজীবী চন্দন কুমার সরকার ও তার গাড়িচালক ইব্রাহীম অপহৃত হন। পরে ৩০ এপ্রিল শীতলক্ষ্যা নদী থেকে ছয়জনের ও ১ মে একজনের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

পরে নিহত প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলামের স্ত্রী সেলিনা ইসলাম বিউটি ও আইনজীবী চন্দন কুমার সরকারের জামাতা বিজয় কুমার পাল বাদী হয়ে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা মডেল থানায় দু’টি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

তদন্ত শেষে গত বছরের ৮ এপ্রিল কাউন্সিলর নূর হোসেন এবং র‌্যাবের চাকরিচ্যুত তিন কর্মকর্তা তারেক সাইদ, আরিফ হোসেন ও এমএম রানাসহ ৩৫ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দেয় পুলিশ।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি সাত খুনের দু’টি মামলায় নূর হোসেন ও ‍র‌্যাবের প্রাক্তন তিন কর্মকর্তাসহ ৩৫ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ (চার্জ) গঠন করা হয়। এ মামলায় ভারতে আটক নূর হোসেন ও র‌্যাবের প্রাক্তন তিন কর্মকর্তাসহ মোট ২৩ জন কারাগারে আটক রয়েছেন। বাকি ১২ জন পলাতক রয়েছেন।






মন্তব্য চালু নেই