মেইন ম্যেনু

মালয়েশিয়ায় আইএস সন্দেহে বাংলাদেশিসহ ৫ জন গ্রেপ্তার

মালয়েশিয়ায় ইসলামিক স্টেট (আইএস) ও আল কায়েদার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে এক বাংলাদেশিসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে দেশটির পুলিশ। গ্রেপ্তার হওয়া একজন মালয়েশিয়ার নাগরিক।

আজ শনিবার সংবাদ সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা যায়।

আজ মালয়েশিয়ার পুলিশ প্রধান খালিদ আবু বকর এই পাঁচজনকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, তাদের মধ্যে একজন ইউরোপের নাগরিক। তিনি মালয়েশিয়ার পেনাংয়ের একটি স্কুলে শিক্ষকতা করতেন। বাকি তিনজন ইন্দোনেশিয়া ও বাংলাদেশ থেকে এসেছেন। তবে বাংলাদেশি সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু জানাননি পুলিশ প্রধান।

৪৪ বছর বয়সী ইউরোপের ওই নাগরিক এর আগে আফগানিস্তান ও বসনিয়ায় আল কায়দা জঙ্গিগোষ্ঠীর হয়ে লড়াই করেছিলেন। গ্রেপ্তার হওয়া বাকিদের সঙ্গে আইএসের সংশ্লিষ্টতা রয়েছে। তারা মালয়েশিয়া এসেছেন মূলত আইএসের জন্য কর্মী সংগ্রহ করতে।

পুলিশ প্রধানের দাবি, গ্রেপ্তার হওয়া ইন্দোনেশিয়ার নাগরিক তাদের বলেছেন, গত বছর ফেসবুকের মাধ্যমে আইএস প্রধান আবু বকর আল বাগদাদির প্রতি তিনি আনুগত্য প্রকাশ করেন।

পুলিশ প্রধান বলেন, এই পাঁচজন মালয়েশিযায় একটি সেল গঠন করে। এখান থেকে তারা মালয়েশিয়া ও দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দেশ থেকে আইএস সদস্য সংগ্রহের জন্য তৎপরতা চালায়।

রাশিয়ার নাগরিকদের ওপর হামলার জন্য আইএসের ১০ নাগরিক থাইল্যান্ডে ঢুকেছে- এমন তথ্যের ভিত্তিতে গত শুক্রবার মালয়েশিয়ার সরকার একটি উচ্চমাত্রার সতর্কবার্তা জারি করে। এরপরদিনই আজ পাঁচজনকে গ্রেপ্তারের কথা জানায়।তবে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছিল গত ১৭ নভেম্বর ও ১ ডিসেম্বর।

তথ্যসূত্র : রয়টার্স অনলাইন।






মন্তব্য চালু নেই