মেইন ম্যেনু

মালয়েশিয়ায় ধর্ষণের অভিযোগ, রক্তাক্ত হলো বাংলাদেশি

মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে এক কিশোরীকে(১৩) ধর্ষণের অভিযোগে এক বাংলাদেশিকে মেরে রক্তাক্ত করেছে ওই দেশের নাগরিকরা। রামপাই বিজনেস পার্কের এক সাইবার ক্যাফেতে এই ঘটনা ঘটে। মালয়েশিয়ার গণমাধ্যম নিউ স্ট্রেট টাইমসের অনলাইনে এই সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে।

তবে ওই বাংলাদেশির নাম বা পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি। প্রহারে সে মারাত্মক ক্ষতবিক্ষত হয়েছে। তার মাথা ফেটে গেছে। শরীরের অন্যান্য স্থান থেকেও প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। পরে অ্যাম্বুলেন্স যোগে তাকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত ৩০ বছর বয়সী ওই বাংলাদেশির বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

মালয়েশিয়ার গণমাধ্যম জানায়, বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় রাত সাড়ে দশটায় রামপাই বিজনেস পার্কে একটি সাইবার ক্যাফেতে ১৩ বছর বয়সী মেয়েকে নিয়ে আসেন এক বাবা। সেখানে মেয়েকে একটি চেয়োরে বসিয়ে কম্পিউটারে গেমস খেলায় মেতে ওঠেন বাবা।

মামলায় বলা হয়েছে, তার বাবা যখন গেমস খেলায় মত্ত তখন ওই কিশোরীকে টয়লেটে ডেকে নেয় এই বাংলাদেশি।

কুয়ালালামপুরের সিআইডি প্রধান সিনিয়র অ্যাসিসট্যান্ট কমান্ডার জয়নুদ্দিন আহমেদ বলেন, টয়লেটে নিয়ে সে ওই বালিকাকে ধর্ষণ করে। এ সময় ওই বাংলাদেশি বালিকাকে কোনো শব্দ না করতে সাবধান করে দেয়। এক পর্যায়ে মেয়েকে না পেয়ে তাকে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন বাবা। তিনি টয়লেটের দরজায় কড়া নাড়েন, সেখানেই মেয়েকে পেয়ে যান। তাৎক্ষণিকভাবে অভিযুক্ত বাংলাদেশিকে মারধোর শুরু করেন তিনি। সাইবার ক্যাফেতে উপস্থিত অন্যদের ডেকে আনেন। সাত দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়েছে অভিযুক্ত বাংলাদেশিকে।

মামলাটি কুয়ালালামপুরে সেক্সুয়াল ক্রাইমস, ডমেস্টিক ভায়োলেন্স অ্যান্ড চাইল্ড অ্যাবিউজ ইনভেস্টিগেশনস ডিভিশনে স্থানান্তর করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই