মেইন ম্যেনু

‘মাস্তানি’ করার কথা ছিল সালমান-ঐশ্বরিয়ার!

দীপিকা-রনবীরের নয়, বরং মেধাবী নির্মাতা সঞ্জয় লীলা বানসালির সদ্য মুক্তি পাওয়া আলোচিত ছবি ‘বাজিরাও মাস্তানি’র কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয়ের কথা ছিল সুপারস্টার অভিনেতা সালমান খান ও ঐশ্বরিয়ার রাইয়ের।

জানা গেছে, নির্মাতা বানসালি ছবিটি আরো বারো বছর আগেই করার পরিকল্পনা করেছিলেন, যখন সালমান খান ও ঐশ্বরিয়ার মধ্যে চলছিল দহরম মহরম। সেসময় ঐতিহাসিক ছবি ‘বাজিরাও মাস্তানি’র কেন্দ্রীয় চরিত্র বাজিরাও হিসেবে সালমান খান এবং মাস্তানি চরিত্রে অভিনয়ের কথা পাকাপোক্ত ছিল ঐশ্বরিয়া রাইয়ের। কিন্তু হঠাৎ করে ঐশ্বরিয়ার সাথে সালমান খানের প্রেমের সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ায় নির্মাতা বানসালি ছবি নির্মাণের পরিকল্পনা থেকে সরে এসেছিলেন।

গত আঠারো ডিসেম্বর শুক্রবার মুক্তি পেয়েছে মেধাবী নির্মাতা সঞ্জয় লীলা বানসালি পরিচালিত ছবি ‘বাজিরাও মাস্তানি’। রনবীর সিং, দীপিকা পাডুকোন ও প্রিয়াঙ্কা চোপড়া অভিনীত এই ঐতিহাসিক ছবিটি মুক্তির প্রথম দিনে বক্স অফিসে আশানুরুপ ব্যবসা না করতে পারলেও আশাবাদী ‘বাজিরাও টিম’। বিশেষ করে নির্মাতা বানসালি মনে করেন যদি সালমানকে ‘বাজিরাও মাস্তানি’র সঙ্গে পেয়ে যান তাহলে তার ছবির বাণিজ্যের দিকটি একটু পোক্ত হবে। কারণ হিন্দি সিনেমায় সালমান খান এখন বিশাল একটা ভরসার নাম। তাছাড়া এই ছবি নির্মাণের পরিকল্পনা যখন প্রথম করা হয়, তখনতো সালমানও ছিলেন তার সাথে।

এ সম্পর্কে ‘দেবদাস’ খ্যাত নির্মাতা সঞ্জয় লীলা বানসালি বলেন, সালমান আজ হিন্দি সিনেমায় পূজনীয়। তিনি যে সিনেমার পাশে দাঁড়ান সেটাই ৩০০ কোটি রুপি ব্যবসা করে। আমি চাইবো তিনি ‘বাজিরাও মাস্তানি’র পাশে দাঁড়াবেন। এই সিনেমায় তার ভূমিকা আছে কি নেই, সেটা কোনো প্রশ্ন না।

এছাড়া ‘বাজিরাও মাস্তিানি’কে নিজের দীর্ঘ দিনের স্বপ্ন উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমার দীর্ঘদিনের স্বপ্ন পূরণ হওয়ায় আমি নিশ্চিত সালমান খানও আনন্দিত হয়েছেন। ‘বাজিরাও মাস্তানি’ করতে আমি দীর্ঘ বারো বছর সময় এটার পিছনে ব্যয় করেছি। ‘বাজিরাও মাস্তানি’ ছিল আমার স্বপ্ন, এটা না করে ইন্ডাস্ট্রি ছেড়ে তাই কোথাও যায়নি। আমি তাই বিশ্বাস করি, যে স্বপ্ন আরো বারো বছর আগে আমরা একসাথে দেখেছিলাম তা পূরণ হওয়ায় সালমানও আনন্দিত।

আমি সালমানকে এই ‘বাজিরাও মাস্তানি’ দেখাতে চাই, যদি সে দেখতে আগ্রহী হোন। সালমান আমার খুবই প্রিয় একজন মানুষ। যদিও গত পাঁচ বছর তার সাথে সাক্ষাৎ কিংবা কোনো কথাও হয়নি আমার, কিন্তু তার জন্যে আমার বিশেষ একটা জায়গা আছে। সে আমার জন্য অনেক করেছে, এবং তার জন্য আমি এই মানুষটির জন্য কৃতজ্ঞ।






মন্তব্য চালু নেই