মেইন ম্যেনু

মাহি বললেন, ‘সিলেটে গিয়ে ভাত রাঁধবো’

ঘরোয়াভাবেই হুট করে বিয়েটা সেরেছেন ঢাকাই সিনেমার সব থেকে জনপ্রিয় নায়িকা মাহিয়া মাহি। তিনি বিয়ে করেছেন সিলেটের ছেলে পারভেজ মাহমুদ অপুকে। তারা একে অপরকে পছন্দ করলেও দুই পরিবারের সিদ্ধান্তেই এই বিয়েটা হয়েছে।

এদিকে ঘরোয়া পরিবেশে বিয়ে হলেও মাহি তার বরকে ঠিকই পরিচয় করিয়ে দিয়েছেন গণমাধ্যমের সঙ্গে। বুধবার সন্ধ্যার পর রাজধানীর উত্তরায় বরকে নিয়ে বধূ বেশে হাজির হয়েছিলেন মাহি। সাংবাদিকদের মুখোমুখি বলেছেন অনেক কথাই।

বধূবেশে এদিন মাহিকে সত্যি ভীষণ সুন্দর লাগছিল। টুকটুকে লাল বেনারশিতে দারুণ মোহনীয় লাগছিল এই নায়িকাকে। আর তার পাশে রূপার রঙ শেরোয়ানি পরা নতুন বর অপুকেও মানিয়েছে দারুণ।

উপস্থিত সাংবাদিকদের সামনে হাসি আর ঠাট্টায় অসম্ভব রকম ফুরফুরে ছিলেন মাহিয়া মাহি। তিনি এসময় বলেছেন, বিয়ের পরে ব্যস্ততা কমিয়ে দিলেও, অভিনয় থেকে দূরে সরে যাবেন না তিনি।

মাহি জানান, ‘সিনেমায় অভিনয় কমে যাবে। খুব ভালো প্রজেক্ট হলে বছরে হয়ত একটা কিংবা দুইটা সিনেমায় অভিনয় করবো।’ তিনি স্বীকার করেন, ‘অভিনয় আমার ভালবাসার যায়গা। তাই এখান থেকে আমি একদমই সরে যাচ্ছি না। আগে বছরে তিনটা ছবি করতাম। এখন হয়তো, একটা বা দুটো সিনেমায় কাজ করবো। আমার তো মনে হয়, এতে আমার অবস্থান আরও শক্ত হবে।’

ক্যারিয়ারের তুঙ্গে থাকা অবস্থায় হঠাৎ করেই বিয়ের সিদ্ধান্ত। এর পেছনের কারণ কী? এমন প্রশ্নে নায়িকা জানিয়েছেন, ‘আমার সবসময়ই ইচ্ছা ছিলো, ক্যারিয়ার যখন তুঙ্গে থাকবে, মানুষ যখন আমাকে চিনবে, পছন্দ করবে, আমি ঠিক তখনই বিয়ে করে ফেলবো। কেউ যেন বলতে না পারে, ক্যারিয়্যার ডাউন হয়ে গেছে বলেই আমি বিয়ে-শাদী করে ফেলেছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি আজকের অবস্থানে রয়েছি বলেই, আপনারা সবাই উপস্থিত হয়েছেন। আমার সাক্ষাৎকার নিচ্ছেন, আমাদের দুজনের ছবি তুলছেন। কিন্তু যদি এমন হতো আমাকে কেউ চিনতেই পারছেনা, আমার কথা সবাই ভুলেই গেছে, তাহলে কিন্তু আপনারা এভাবে আগ্রহ দেখাতেন না। তাই এমন সিদ্ধান্ত।’

বিয়ের পর জনপ্রিয়তা যদি কমে যায়, সেক্ষেত্রে কী করবেন? প্রশ্ন শুনে হেসে ফেলেন মাহি। ঠাট্টাচ্ছলে বলেন, ‘সমস্যা নেই, সিলেটে গিয়ে ভাত রাঁধবো।’

মাহি বলেন, ‘বিয়েটা হুট করেই করেছি। কিন্তু আমার যদি মনে হয় আমাকে কেউ পছন্দ করছেনা, অবশ্যই তখন আমি এখানে থাকবো না। কিন্তু যদি দেখি একজন দর্শকও আমাকে পছন্দ করছেন সেক্ষেত্রে আমি আমার ক্যারিয়্যার ছাড়বো না।’






মন্তব্য চালু নেই