মেইন ম্যেনু

মাহি-শাওনের কথিত বিয়ের কাবিননামায় যা আছে

photo-1466059449চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির কথিত স্বামী শাহরিয়ার ইসলাম শাওন আদালতে একটি কাবিননামা উপস্থাপন করেছেন। সেটি মাহির সঙ্গে বিয়ের বলে তিনি দাবি করেছেন।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকার সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনালের বিচারক কে এম শামসুল আলমের আদালতে কাবিননামা জমা দেন শাওন।

বিয়ের কাবিননামা বা নিকাহনামায় দেখা যায়, ২০১৫ সালের ১৫ মে শারমিন আক্তার নিপা ওরফে মাহিয়া মাহি (২৩) ও শাহরিয়ার ইসলাম শাওন (২৩) বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। বিয়ের কাবিনের জন্য ধরা হয় চার লাখ টাকা। এর মধ্যে উসুল দেখানো হয়েছে দুই লাখ টাকা।

বিয়েতে রাজশাহীর নুরুল ইসলাম ও ঢাকার বাড্ডার ইউসুফ আলী নামের দুজন ব্যক্তি সাক্ষী হয়েছেন।

ঢাকা জেলার দক্ষিণ বাড্ডা কাজি অফিসের কাজি আবুল কাশেম বিয়ে পড়িয়েছেন। কাবিননামার সিরিয়াল নম্বর ১৮৬/১৫।

কাবিননামার তথ্য অনুযায়ী, কন্যা মাহিয়া মাহির জন্ম ২৭ অক্টোবর ১৯৯৪। তিনি নিজেকে কুমারী হিসেবে কাবিননামায় উল্লেখ করেছেন। কন্যার বাবার নাম আবু বকর সিদ্দিক, মা দিলারা ইয়াসমিন। ঠিকানা হিসেবে লেখা হয়েছে বাড়ি নম্বর-২২, রোড নম্বর-১১, সেক্টর-৯, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০।

এ ছাড়া বর শাহরিয়ার ইসলাম শাওনের জন্ম ১৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৪। তাঁর বাবার নাম মো. নজরুল ইসলাম, মা শিউলী আক্তার। ঠিকানা : প-১৩ দক্ষিণ বাড্ডা, গুলশান, বাড্ডা, ঢাকা-১২১২।

বিয়েতে কন্যার উকিল বাবা হিসেবে ছিলেন মোহাম্মদ হারুন অর রশিদ নামের এক ব্যক্তি। তাঁর বাবা আবদুর রহমান। ঠিকানা : প-১৩ দক্ষিণ বাড্ডা, গুলশান, বাড্ডা, ঢাকা-১২১২।

কাবিননামায় উল্লেখ করা হয়েছে, মাহির খোরপোষসহ সবকিছুই শাওন বহন করবেন।

স্বামীকে তালাক দেওয়ার ক্ষমতা প্রসঙ্গে কাবিননামায় বলা আছে, নিয়মিত খোরপোষ না দিলে বা মনের অমিল হলে কন্যা যখন ইচ্ছা স্বামীকে তালাক দিতে পারবেন। তবে স্বামীর তালাক প্রদানের অধিকার খর্ব হয়েছে কি না এ প্রশ্নের জবাবে লেখা হয়েছে—না, হয়নি।-এনটিভি

1466059487-3






মন্তব্য চালু নেই