মেইন ম্যেনু

মায়াবতী সেই তুমি

অচেনা পথের সাঁঝে হয়েছে দেখা, কেমন যেন হৃদয় টা কেঁপে উঠল, হ্যাঁ এ তো সেই জন, স্বপ্নে দেখা সেই জন।

যাকে ছাড়া দিন কাটে না, কাটে না সময়, চেয়ে থাকি শুধু ঐ নীল আকাশের মেঘের পাহাড়ে পাহাড়ে, আঁকি তোমায় সেই স্বচ্ছ মনের রঙে। থাকি অপেক্ষার প্রহর গুনে গুনে।

পরেছে চোখে চোখ, আহা কি মায়া, এ যে সেই মায়াময়ী মায়াবতী, যাকে পাওয়ার আশায় কতই না ছুটেছি অন্ধকারের সেই স্বপ্ন পথে, পরেছি কতই না বিপাকে, হারিয়েছি কত বার চোখের বাঁকে। তবুও ছাড়ি নি আশা, হ্যাঁ সে যে সেই মায়াবতী।

যাকে চাই কত না আশা-আকাঙ্খায়, সে যে এই হৃদয়ের একটাই চাওয়া-পাওয়া। সে যে এই একাকি হৃদয়ের সেই মায়াবতী।

যাকে ছাড়া দিন কে বলি রাত, রাত কে দিন। ভেসে বেড়াই অকুল পাথারে, হ্যাঁ সে তো সেই যে এঁকে দিয়েছে এই হৃদয়ে তার সেই মায়াময়ী আঁখি, তাকে কি ভোলা যায়?

না, কখনও না, সে যে এই হৃদয়ের স্বপ্নচারিনী। তাকে ঘিরেই আমার যত স্বপ্ন, আশা, ভালবাসা।

সে তো সেই মনের আশা, যার না পাওয়া কাঁদে দুমরে দুমরে পথের বাঁকে, কত না ধুলি
কণার সাথে তার মিতালী, হ্যাঁ, তার সেই দুঃখের দিনের অবশান হয়েছে,,, মনে উঠেছে সেই সোনালী সকাল, মায়াবতী তোমার জন্য, শুধু তোমার জন্য।

লেখক: আরিফুল ইসলাম জয়






মন্তব্য চালু নেই