মেইন ম্যেনু

মায়ের আদেশে মাকে কাঁধে নিয়ে ৩৭ হাজার কি.মি পাড়ি ছেলের

ছোটোবেলায় দাদা-দাদীর মুখে শ্রবণকুমারের গল্প শুনেছেন নিশ্চয়ই। সেই বিখ্যাত চরিত্র। নিজের বাবা-মাকে কাঁধে নিয়ে তীর্থভ্রমণ করতেন যিনি। তা বলে এই ঘোর কলিতেও শ্রবণকুমারের দেখা মিলবে? কল্পনাতীত মনে হলেও এটাই সত্যি! ২০ বছর ধরে নিজের মাকে বাঁকের উপর ঝুড়িতে বসিয়ে তীর্থভ্রমণ করছেন ভারতের মধ্য প্রদেশ রাজ্যের জব্বলপুরের কৈলাশ গিরি।

কৈলাশ গিরির কাছে তার মা কীর্তি দেবি একদিন চারধাম ঘোরার ইচ্ছাপ্রকাশ করেন। ব্যস, মায়ের আদেশ শিরোধার্য করে বাঁকের দুই প্রান্তে ঝুড়ি টাঙিয়ে তাকে নিয়ে বেরিয়ে পড়েন কৈলাশ। মাকে কাঁধে নিয়ে এখনও পর্যন্ত ৩৭ হাজার কিলোমিটার হেঁটেছেন কৈলাশ।

কৈলাশ জানিয়েছেন, ‘আমার বয়স যখন ২৮, তখন মাকে নিয়ে তীর্থক্ষেত্রে ঘুরতে শুরু করি। আর আজ আমি ৫০-এর দোরগড়ায়। ২০ বছর ধরে বিভিন্ন তীর্থে ঘুরে বেড়াচ্ছি আমি।’ মথুরা যাওয়ার পথে একথা জানিয়েছেন তিনি।

তিনি আরও জানিয়েছেন, ‘১৯৯৬ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে নিজের শহর থেকে যাত্রা শুরু করি। তবে এবার মথুরায় বাঁকে বিহারীর মন্দিরে ভগবান শ্রীকৃষ্ণের দর্শন করতেই হবে।’ আগ্রায় তাকে দেখতে জড়ো হন অনেকেই। তাদেরই একজন তাকে প্রশ্ন করেন, নিজের পরিবার ও কেরিয়ার ছেড়ে মাকে নিয়ে ঘুরছেন?

হাসিমুখে কৈলাশের উত্তর, ‘১৪ বছর বয়সে একবার গাছ থেকে পড়ে মরে যাওয়ার কথা আমার। সেই সময়, আমার মা কীভাবে আমার সেবা করেছিলেন তা আমি ভুলিনি। মায়ের জন্যই আমি জীবন ফিরে পেয়েছি। তা ছাড়া, আমি ছাড়া মায়ের আর কেউ নেই। কে তার শেষ ইচ্ছা পূরণ করবে?






মন্তব্য চালু নেই