মেইন ম্যেনু

মায়ের হাতে সন্তান খুন!

রাজশাহী জেলার পবা উপজেলার পারিলার ঘোলহাড়িয়া গ্রামে মায়ের বিরুদ্ধে সন্তান হত্যার অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। শিশুর পিতা বাদি হয়ে পবা থানায় অভিযোগ করেছেন। এরপরে সন্ধ্যায় পুলিশ ১৪ মাস বয়সি ওই শিশুর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য থানা হেফাজতে নিয়েছে।

পবা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আবু তাহের জানান, বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে ঘোলহাড়িয়া গ্রামের আলমগীর ও তার স্ত্রী সুখিমনের মধ্যে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে ঝগড়া হয়। এ সময় আলমগীর তার স্ত্রী সুখিমনকে ঝাঁডু দিয়ে আঘাত করেন। রাগে সুখিমন শিশু আরজিনাকে রেখেই একই উপজেলার তেবাড়িয়া গ্রামে বাপের বাড়িতে চলে যায়।

পরে খাবারের জন্য কাঁদতে থাকলে শিশুর দাদি ও চাচি শিশুকে নিয়ে তেবাড়িয়ার দিকে রওনা হন। পথিমধ্যে শিশুটি মারা যায়। এ থেকে পরিবারের লোকজন সন্দেহ হয় যে মা সুখিমন বাবার বাড়িতে যাওয়ার আগে শিশুটির মুখে বিষ দিয়েছিলো। তাই রাস্তায় যেতেই আরজিনা মারা যায় বলে আলমগীর তার অভিযোগে উল্লেখ করেছেন।

এসআই আবু তাহের আরো জানান, শিশুর মুখে বা চেহারায় বিষের আলামত পাওয়া যায় নাই। এরপরও ময়নাতদন্ত ছাড়া কিছু বলা যাবে না। শুক্রবার সকালের দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে শিশুটির ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হবে।






মন্তব্য চালু নেই