মেইন ম্যেনু

মিঠাপুকুর বাসস্ট্যান্ড গুলোতে ঢাকামুখী যাত্রীদের ভিড়

মো: শামীম আখতার, উপজেলা প্রতিনিধি, মিঠাপুকুর (রংপুর) : রংপুরের মিঠাপুকুরে বাসস্ট্যান্ডগুলোতে ঢাকামুখী যাত্রীদের প্রচন্ড ভিড় লেগেছে। ঈদের ছুটিতে কর্মস্থল থেকে গ্রামে এসে তারা এ ভোগান্তীতে পড়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মিঠাপুকুরের লক্ষাধীক মানুষ কর্মের তাগিদে ঢাকাসহ আশপাশের জেলাগুলোতে অবস্থান নিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে আসছেন। এরমধ্যে ঢাকা ও গাজীপুরে অবস্থিত গার্মেন্টগুলোতে কর্মরতদেরই সংখ্যা বেশি। তারা ঈদ করতে গ্রামে এসেছেন। কিন্তু, কর্মস্থলে ফিরে যেতে তাদের পোহাতে হচ্ছে নানা ভোগান্তী। একদিকে বাসের সংকট, অন্যদিকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হচ্ছে।

সরেজমিনে ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের দমদমা, বৈরাগীগঞ্জ, বলদীপুকুর, জায়গীর, মিঠাপুকুর ও শঠিবাড়ী’র ঢাকা বাসস্ট্যান্ডে গিয়ে দেখে, প্রতিটি স্টান্ডেই শতাধীক যাত্রী বসে আছেন বাসের অপেক্ষায়। কিছুক্ষন পরপর বাস আসলেও সিট খালি নেই বেশিরভাগগুলোর। দাঁড়িয়ে যাওয়া ছাড়া কোন উপায় নেই। অনেকে বাধ্য হয়ে দাড়িয়ে যাওয়ার সিধান্ত নিচ্ছেন। তবুও গুনতে হচ্ছে অতিরিক্ত ভাড়ার বোঝা। লোকাল এসব বাসে যাত্রী প্রতি সিট ভাড়া নেওয়া হচ্ছে ৬শ থেকে ৭শ টাকা। দাঁড়িয়ে গেলেও ভাড়া কম নয়, সাড়ে ৪শ টাকা নিচ্ছেন বাস স্টাফরা। অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের অভিযোগ তুললে অট্টহাসির হাসছেন তারা। এসবের মধ্যেও অনেকেই ঝঁকি নিয়ে ফিরছেন কর্মস্থলে। অনেকে ট্রাকে করে যাচ্ছেন ঢাকায়।

এ সময় কথা হয় পোশাক কারখানার শ্রমিক আমিনুর ইসলামের সাথে। তিনি বলেন, আমার রোববার ছিল ছুটির শেষদিন। সোমবার সকালেই কাজ শুরু করতে হবে কারখানায়। বাসের জন্য আজ (মঙ্গলবার) পর্যন্ত কর্মস্থলে পৌঁছাতে পারিনি। আমিনুর ইসলামের সাথে তাল মিলিয়ে মমতা বেগম নামে এক গার্মেন্টকর্মী জানান, বুধবার সকালে অফিসে পৌছাতে হবে। (মঙ্গলবার) বিকেল থেকে বসে আছি বাসের
টিকিট পাচ্ছি না। যাত্রী রবিউল ইসলাম জানান, বিলাস বহুল বাসগুলোর টিকেট শেষ হয়ে গেছে। তাই,
বাধ্য হয়ে লোকাল বাসের অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে।

শঠিবাড়ী ডিপজল কাউন্টারের পরিচালক সোহেল রানা বলেন, আগামী ১৪ জুলাই পর্যন্ত সব টিকেট শেষ হয়ে গেছে। তাই, আমরা এরমধ্যে যাত্রীদের টিকেট দিতে পারছিনা।






মন্তব্য চালু নেই