মেইন ম্যেনু

মিতুর ব্যবহৃত সিম কার্ডের সূত্র ধরে ফের তদন্ত

প্রাক্তন পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যা মামলায় মিতুর ব্যবহৃত মোবাইল ফোনের সিম কার্ডের সূত্র ধরে ফের তদন্ত শুরু করেছে তদন্ত কর্মকর্তা।

এর ধারাবাহিকতায় মিতুর সিম কার্ডের কললিস্ট এবং মিতুর বাসায় যাতায়াতকারীদের ব্যাপারেও তথ্য সংগ্রহ ও তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা চট্টগ্রাম নগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার মো. কামরুজ্জামান বলেন, মিতু হত্যা মামলার অভিযোগপত্র তৈরির লক্ষ্যে প্রতিটি ছোট ছোট বিষয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে মিতুর ব্যবহৃত মোবাইল ফোনের সিম কার্ডটি দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর গত সপ্তাহ থেকে এটি সচল পাওয়া যায়। মিতুর বাবা মোশারফ হোসেনের কাছ থেকে এ ব্যাপারে তথ্য পেয়ে ঢাকার মালিবাগ এলাকার এক অটোরিকশা চালকের কাছ থেকে সিমকার্ডটি উদ্ধার এবং অটোচালককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। সিমকার্ডের সূত্র ধরে তদন্তের পাশাপাশি মিতুর বাসায় যাতায়াতকারীদের ব্যাপারে তদন্ত এবং কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে মোহাম্মদ মফিজ নামে মিতুর এক খালাত ভাইকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, চাঞ্চল্যকর এ মামলার তদন্ত শেষ পর্যায়ে রয়েছে। এর মধ্যে মিতুর ব্যবহৃত মোবাইল ফোনের সিম কার্ডটি উদ্ধার করা হয়েছে। সিম কার্ডের সূত্র ধরে নতুন কোনো তথ্য পাওয়া যায় কি-না তা আমরা তদন্ত করে দেখছি।

প্রসঙ্গত, গত ৫ জুন বাসা থেকে ছেলেকে স্কুলবাসে তুলে দিতে যাওয়ার সময় চট্টগ্রাম নগরীর জিইসি মোড়ে দুর্বৃত্তদের গুলি ও ছুরিকাঘাতে নিহত হন প্রাক্তন পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদ খানম মিতু। এই হত্যাকাণ্ডের সারাদেশে তোলপাড় সৃষ্টি হয়।






মন্তব্য চালু নেই