মেইন ম্যেনু

মিতু হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পরিবর্তন

চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মিতু হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পরিবর্তন করা হয়েছে।

হত্যাকাণ্ডের এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও মামলার উল্লেখযোগ সাফল্য দেখাতে না পারা এবং আসামি গ্রেপ্তার ও আদালতে সোপর্দ করা নিয়ে নানা সমালোচনার মুখে মামলার প্রথম তদন্ত কর্মকর্তা নগর গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক কাজি রকিব উদ্দিনকে পরিবর্তন করা হয়েছে। তার পরিবর্তে নতুন তদন্ত কর্মকর্তা নিয়োগ পেয়েছেন নগর গোয়েন্দা পুলিশের দক্ষিণ জোনের সহকারী কমিশনার মোহাম্মদ কামরুজ্জামান। শনিবার রাতে এই পরিবর্তন করেন নগর পুলিশ কমিশনার ইকবাল বাহার।

জানা গেছে, মিতু হত্যাকাণ্ডের পর নগরীর পাঁচলাইশ থানায় স্ত্রী হত্যায় মামলা দায়ের করেন পুলিশ সুপার বাবুল আক্তার। মামলা দায়েরের একদিন পরেই এই মামলাটি নগর গোয়েন্দা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। মামলা তদন্তে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল নগর গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক কাজী রকিব উদ্দিনকে। তদন্ত কর্মকর্তা হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে আবু নসর গুন্নু নামে এক ব্যক্তিকে হাটহাজারীর ফরহাদাবাদ থেকে গ্রেপ্তার করেন। গুন্নুকে গত বৃহস্পতিবার আদালতে হাজির করার পর রিমান্ডের আবেদন করা হয়। কিন্তু সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র উপস্থাপন করতে না পারায় রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেনি আদালত। এতে সমালোচনার মুখে পড়েন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কাজি রকিব উদ্দিন। এ ছাড়া এই গ্রেপ্তার নিয়ে পুলিশ ৩০ লাখ টাকার বাণিজ্য করেছে বলে গুন্নুর পরিবারের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়। এমন সমালোচনার মুখে আলোচিত এ মামলাটি নতুন করে তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে চট্টগ্রাম গোয়েন্দা বিভাগের দক্ষিণ জোনের সহকারী কমিশনার মো. কামরুজ্জামানকে।






মন্তব্য চালু নেই