মেইন ম্যেনু

মির্জা ফাখরুল হাসপাতালে

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে চিকিৎসার জন্য বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালের প্রিজন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। হাইকোর্টের নির্দেশে শনিবার দুপুর ২টার দিকে তাকে কারাগার থেকে এনে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ের প্রেস উইং কর্মকর্তা শাইরুল কবির খান।

শনিবার সকালে কাশিমপুর কারাগার থেকে ফখরুলকে অ্যাম্বুলেন্সে করে বিএসএমএমইউতে পাঠানো হয় বলে জানান কাশিমপুরের কারা চিকিৎসক মো. শাহাদত হোসেন।

এর আগে গত ৯ জুন মির্জা ফখরুলকে চিকিৎসার জন্য বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করাতে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

ফখরুলের স্ত্রী রাহাত আরা বেগমের একটি আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত এ নির্দেশ দেন। আবেদনে চিকিৎসার জন্য ফখরুলকে হাসপাতালে ভর্তির নির্দেশনা চাওয়া হয়।

ফখরুলের আইনজীবী অ্যাডভোকেট সগীর হোসেন লিওন বাংলামেইলকে বলেন, ‘মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের হার্টে রিং পড়ানো আছে। তার হার্টে ৮০ ভাগ ব্লগ হয়ে গেছে।’
তিনি বলেন, ‘ফখরুলের বিরুদ্ধে নাশকতার অভিযোগ এনে মোট ৭টি মামলা দায়ের করেছে সরকার। সে ৭টি মামলার এক মামলায় তিনি জামিনে আছেন, ৩টিতে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। আর তিন মামলায় জামিনের জন্য আবেদন করা হবে।’

উল্লেখ্য, গত ৬ জানুয়ারি জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে থেকে বিএনপির এই নেতাকে গ্রেফতার করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। এরপর থেকে তিনি কারাগারে আটক আছেন।
সে সময় ঢাকা মহানগর পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল- মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। তাই তাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।






মন্তব্য চালু নেই