মেইন ম্যেনু

মিয়ানমারে নির্বাচনের ফল প্রভাবিত করার চেষ্টার অভিযোগ

মিয়ানমারে অনুষ্ঠিত সাধারণ নির্বাচনের ফল প্রকাশ ঘিরে উত্তেজনা বাড়ছে। দেশটির প্রধান বিরোধী দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসি (এনএলডি) অভিযোগ করেছে, তাদের জয়ের সম্ভাবনা দেখে সরকার কৌশলের আশ্রয় নিয়েছে। নির্বাচন কমিশন ইচ্ছা করে ফল প্রকাশে দেরি করছে । সেই সঙ্গে তারা ‘হয়তো কৌশল খাটানোর’ চেষ্টা করছে। মঙ্গলবার দলের মুখপাত্র উইন তিয়েন এ অভিযোগ করেন।

২৫ বছর পর রোববার মিয়ানমারে প্রতিদ্বন্দ্বীতাপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সোমবার থেকে ফল ঘোষণা শুরু হয়। সর্বশেষ দেশটির আইনসভার নিন্মকক্ষের ৮৮ আসনের ফল ঘোষণা করা হয়েছিল। এতে ৭৮টিই পেয়েছে সুচির দল এনএলডি। আর সামরিক বাহিনীর মদদপুষ্ট ক্ষমতাসীন ইউনিয়ন সলিডারিটি অ্যান্ড ডেভলেপমেন্ট পার্টি ( ইউএসডিপি) পেয়েছে মাত্র পাঁচটি আসন। নিন্মকক্ষ ও উচ্চকক্ষ মিলিয়ে সর্বমোট ৬৫৭ টি আসন রয়েছে। তবে জান্তা সরকার দেশটির সংবিধান সংশোধন করে ১৬৬টি আসন সেনাবাহিনীর জন্য সংরক্ষিত রেখেছে। সে হিসেবে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনের জন্য উভয়কক্ষে ৩২৯টি আসন পেলেই চলবে। সুচির দল এনএলডি দাবি করেছে, তারা ৩৮০ আসনে বিজয় পাবে।

মঙ্গলবার সকালে সুচির বাসায় বৈঠক শেষে দলের মুখপাত্র উইন তিয়েন অভিযোগ করেন, ‘ কেন্দ্রী নির্বাচন কমিশন ইচ্ছা করে ফল প্রকাশে বিলম্ব করছে। কারণ তারা চাতুর্য বা অন্যকোনো কৌশল খাটাতে চাচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘ তারা ভাগে ভাগে ফল প্রকাশ করছে, যা বোধগম্য নয়। এটা এমন হওয়া উচিৎ নয়। তারা কূটবুদ্ধি খাটানোর চেষ্টা করছে।’

প্রসঙ্গত, ১৯৯০ সালের নির্বাচনে সুচির এনএলডি এককভাবে বিজয়ী হলেও দলটিকে ক্ষমতায় যেতে দেয়নি জান্তা।






মন্তব্য চালু নেই