মেইন ম্যেনু

মুন্সীগঞ্জে লেগুনা চালকের রহস্যজনক মৃত্যু

নাসরিন আক্তার, মুন্সীগঞ্জ থেকে : মুন্সীগঞ্জে মো. জুয়েল (২২) নামে এক লেগুনা চালকের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ বলছেন, বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে জুয়েল মারা গেছে। নিহতের মা রেহেনা বেগম বলেছেন, তার ছেলেকে হত্যা করে অপ্সাত যুবকেরা লাশ মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ফেলে রেখে পালিয়ে গেছে।

বুধবার বেলা ১১ টার দিকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল থেকে নিহত জুয়েলের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত জুয়েল সদর উপজেলার রামপাল ইউনিয়নের হাতিমারা এলাকার সোহরাব হোসেনের ছেলে।

জুয়েলের মা রেহেনা বেগম জানান, তার ছেলে জুয়েল গৎারিয়ার ভবেরচর এলাকায় লেগুনা চালাতো। সকাল ১০টায় জুয়েল তাকে ফোন করে জানায়, দুপুর ১২টার মধ্যে কিস্তির ৩ হাজার টাকা পাঠাচ্ছি। এরপর ছেলের মোবাইল থেকে বেলা ১১টার দিকে তাকে অজ্ঞাত এক যুবক ফোন করে তাকে জানায়, ছেলে লাশ হয়ে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পড়ে রয়েছে।

তিনি আরও জানান, তার ছেলে বুধবার ব্যবহ্নত লেগুনাটি ২ লাখ টাকায় বিক্রি করেছে। এ টাকার জন্যই হয়তো অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা ছেলেকে হত্যা করেছে।

মুন্সীগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইউনুচ আলী জানান, জুয়েল বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা গেছে। নিহতের হাতে শকের চিহ্ন রয়েছে। তবে, কোন এলাকায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়েছে তা তিনি জানাতে পারেননি।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যারা ওকে হাসপাতালে রেখে গেছে, তাদের সনাক্ত করার চেষ্টা চলছে। তাদের পাওয়া গেলেই আসল ঘটনা জানা যাবে। আপাতত অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।
একাধিক সূত্র মতে, শহরের উল্টর ইসলামপুরে এ ঘটনা ঘটেছে।

মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. সৈবাল বসাক জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে জুয়েল মারা গেছেন।






মন্তব্য চালু নেই