মেইন ম্যেনু

‘মুয়াজ্জিন হত্যার পরিকল্পনা হয় কেরানীগঞ্জে মসজিদে’

রাজধানীর পুরান ঢাকার ইসলামপুরে ঝব্বু খানম জামে মসজিদের মুয়াজ্জিন বিল্লাল হোসেনকে (৪৯) হত্যার পূর্বে কেরানীগঞ্জের একটি মসজিদে বসে পরিকল্পনা হয়েছিল।

বুধবার দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লালবাগ বিভাগের উপকমিশনার মফিজ উদ্দিন আহমেদ সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, হত্যাকাণ্ডের পরিকল্পনার পর হোতা খাদেম হাবীব ঘটনার দুই দিন আগে ছুটি নিয়ে দুদিনের জন্য গ্রামের বাড়িতে যান। কেউ যেন সন্দেহ না করতে না পারে, সে জন্য ছুটিতে থাকা অবস্থায় আবার ঢাকায় ফিরে এসে হত্যাকাণ্ড ঘটান।

মফিজ উদ্দিন আহমেদ আরো বলেন, মুয়াজ্জিন হত্যার সঙ্গে যে পাঁচজন জড়িত ছিলেন, তাদের মধ্যে চারজনকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়েছে। আর একজন পলাতক রয়েছেন।

গ্রেপ্তার হওয়া চারজন হলেন ঝব্বু খানম জামে মসজিদের খাদেম হাবীব, দ্বিতীয় মুয়াজ্জিন মোশারফ হোসেন, বিল্লালের বন্ধু সরোয়ার হালিম এবং হাবীবের বন্ধু তোফাজ্জল।






মন্তব্য চালু নেই