মেইন ম্যেনু

মৃত মানুষের কফিনে আটকে রেখে ৭ বছর ধরে তরুণীকে ধর্ষণ!

মানুষ তার যৌন লালসা চরিতার্থ করতে কতোটা ভয়ংকর হতে পারে তা আবারও সামনে এলো।

ক্যালিফোর্নিয়ায় কাঠের তৈরি একটি কফিনে আটকে রেখে ৭ বছর ধরে এক তরুণীকে ধর্ষণ করেছে ক্যামেরুন হুকার নামের এক ব্যক্তি।

ওই তরুণীর নাম কলিয়েন স্টান। ১৯৭৭ সালে ২০ বছর বয়সে অপহরণের শিকার হন তিনি।

এরপর ১৯৮৪ সাল পর্যন্ত কলিয়েনকে একটি কাঠের বাক্সে বন্দি করে রাখেন ক্যামেরুন হুকার।

এই সাত বছরে কলিয়েনের ওপর চলে অমানবিক নির্যাতন। তাকে শুধু তখনই ওই কফিনের বাক্স থেকে বের করা হতো যখন তাকে ধর্ষণ করা হতো।

১৯৭৭ সালে রাস্তার পাশে হিচহাইকিং করছিলেন কলিয়েন। ঠিক ওই সময় ক্যামেরুন তার স্ত্রী জ্যানিয়েসের সঙ্গে ভ্রমণে বের হয়েছিলেন। পরে তারা কলিয়েনকে তাদের গাড়িতে তুলে নেন।

কলিয়েন তখন ভেবেছিলেন, তারা হয়তো ভালো মানুষ। কেননা তাদের সঙ্গে একটি শিশুও ছিল।

কিন্তু ঘণ্টাখানেক পর তার বিশ্বাস ভেঙে যায়। ক্যামেরুন ছুরি বের করে ভয় দেখান কলিয়েনকে। এরপর তার হাত ও মুখ বেঁধে ফেলা হয়।

পরে কলিয়েনকে নিয়ে যাওয়া হয় ক্যালিফোর্নিয়ার একটি বাড়িতে। সেখানে একটি কাঠের বাক্সে রাখা হয় তাকে।

সেখানে শুধু ধর্ষণের সময় তাকে কফিন থেকে বের করা হতো।

পরে ১৯৮৪ সালে ওই বন্দীদশা থেকে মুক্তি পান কলিয়েন। অবশ্য কলিয়েনকে সেসময় সহযোগিতা করেন ক্যামেরুনের স্ত্রী।

পরে ধর্ষণের অভিযোগে ক্যামেরুনের ১০৪ বছর জেল হয়।

এদিকে, গোটা কাহিনী নিয়ে সিনেমা নির্মাণ করা হচ্ছে হলিউডে। ছবির নাম ‘গার্ল ইন দ্য বক্স’। শনিবার যা প্রিমিয়ার হবে।






মন্তব্য চালু নেই