মেইন ম্যেনু

মৃত হাতির কঙ্কাল খোঁজ দিল প্রাচীন বরফ মানবের

বরফের নিচে চাপা পড়ে থাকা প্রাচীনকালের বিশালাকৃতি লোমশ হাতির একটি অক্ষত কঙ্কাল পাওয়া গেছে রাশিয়ার উত্তরের সুমেরীয় অঞ্চলে। এই হাতির অস্তিত্ব প্রমাণ করেছে ৪৫ হাজার বছর আগে আর্কটিকে মানুষের বসতি ছিল।

সুমেরীয় অঞ্চলে মানুষের বসতি ছিল কিনা সেই প্রশ্নে এখন পর্যন্ত অনেক অনুসন্ধান করেছেন বিজ্ঞানীরা। অনেক প্রমাণও তারা পেয়েছেন যা থেকে ধারণা করা হয়েছে, সেখানে মানুষের বসতি ছিল ৩৫ হাজার বছর আগে পর্যন্ত। কিন্তু এবারের পাওয়া মৃত হাতি প্রমাণ করেছে, প্রাণের অস্তিত্ব ছিল আরও দশ বছর আগে থেকেই।

এই ধরনের হাতি এখন বিলুপ্ত। হাতির শরীরে এমন কিছু কাটা দাগের চিহ্ন রয়েছে যেগুলো একমাত্র পাথর কিংবা পশুর শিং কেটে বানানো শিকারি অস্ত্র দিয়ে করা সম্ভব। এ ধরনের অস্ত্র একমাত্র আদিম মানুষরাই ব্যবহার করতো।

এই জাতীয় হাতিকে ব্যাবহার করেই আসলে বরফ মানবেরা বেঁচে থাকতে পেরেছে। হাতির লোমশ চামড়া ব্যবহার করে শীত নিবারণ করেছে। মাংস থেকে আহার সংগ্রহ করেছে এবং হাড়গোড় দিয়ে তৈরি করেছে শিকারের অস্ত্র। আবিষ্কারকারী দলের একজন সদস্য ভ্লাদিমির পিটুলকো সংবাদ মাধ্যম বিবিসিকে বলেছেন, প্রাচীন মানুষদের যে দলটি এই বিশালকায় হাতিকে ধরাশায়ী করেছিলেন তারা সংগঠিত ও দক্ষ একদল শিকারি ছিলেন।






মন্তব্য চালু নেই