মেইন ম্যেনু

মেক্সিকোতে নিখোঁজ ছাত্রদের স্মরণ

মেক্সিকোতে ৪৩ জন শিক্ষার্থীর নিখোঁজ হওয়ার এক বছর পূর্তী আজ। নিখোঁজ ছাত্রদের স্মরণ করছে তাদের বাবা-মা ও দেশের সাধারণ মানুষ। এ উপলক্ষে তাদের পরিবারের সদস্যরা রোববার রাজধানীর রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ জানিয়েছে। ন্যায়বিচারের দাবিতে হারিয়ে যাওয়া সন্তানদের ছবি সম্বলিত ব্যানার নিয়ে প্রেসিডেন্টের বাসভবনের সামনে বিক্ষোভ করেছেন নিখোঁজ সন্তানদের বাবা-মা ও আত্মীয় স্বজনরা। তারা প্রতিবাদের অংশ হিসেবে ২৩ ঘণ্টা উপোশ করেন। তাদের সাথে যোগ দিয়েছে হাজার হাজার সাধারণ মানুষ।

গুয়েরেরো প্রদেশের ইগুয়ালা শহরে একটি বিক্ষোভে অংশ নেওয়ার সময় গত বছর ২৬ সেপ্টেম্বর ৪৩ ছাত্র নিখোঁজ হয়েছিল। এই অভিযোগে উগুয়ালার মেয়রকে বরখাস্ত করা হয়েছিল। তাকে ও তার স্ত্রীকে আটক করা হয়েছিল। কিন্তু নিখোঁজ ছাত্রদের সম্পর্কে এখনো কোনো তথ্য জানা যায় নি। তাদের সম্পর্কে কোনো তথ্য জানাতে পারেনি দেশটির গোয়েন্দা ও নিরাপত্তাকর্মীরা।

তবে দেশটির কর্তৃপক্ষ এর আগে জানিয়েছিল, একটি অপরাধী চক্র ঐসব শিক্ষার্থীকে হত্যা করে পুড়িয়ে ফেলেছিল। এছাড়া বিভিন্ন সূত্র থেকে বলা হয়েছিল, ওই শিক্ষার্থীরা না বুঝেই মাদক বহনকারী একটি বাসের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছিল পরে অপরাধী চক্র তাদের হত্যা করে। তবে সরকার তাদের বাঁচাতে কিছুই করেনি এবং কোনো নিরাপত্তারও ব্যবস্থা করতে পারেনি।

এই ঘটনার তদন্তের জন্য আন্তর্জাতিক মহলের তত্ত্বাবধানে বিশেষ বিভাগকে হস্তক্ষেপের দাবি জানিয়েছে নিখোঁজ শিক্ষার্থীদের বাবা-মায়েরা।হোসে এঞ্জেল নামে নিখোঁজ এক ছাত্রের বাবা বর্ণাঢ্য সান্টোস কাম্পোস বিবিসিকে বলেছেন, ‘যতক্ষণ পর্যন্ত ঘটনার বিস্তারিত জানা না যাবে, ততক্ষণ তাদের আন্দোলন চলবেই।’

তিনি বলেন, যতক্ষণ তারা আমাদের নিখোঁজ সন্তানদের ফিরিয়ে দিতে না পারবে, অথবা এ বিষয়ে কোনো সদুত্তর না দেবে, ততক্ষণ এই লড়াই চলবে। এদিকে দেশটির প্রেসিডেন্ট এনরিক পেনা নিয়েতো ওই ঘটনাা তদন্তের জন্য একটি বিশেষ ইউনিট গঠনের ঘোষণা দিয়েছেন বলে জানা গেছে।






মন্তব্য চালু নেই