মেইন ম্যেনু

মেসি-আগুয়েরোয় মান বাঁচলো আর্জেন্টিনার

খেলার ৮৪ মিনিট শেষ। আর্জেন্টিনা ২-০ গোলে মেক্সিকোর বিপক্ষে পিছিয়ে। এমন সময় ত্রাতায় ভূমিকায় অবতীর্ণ হলেন লিওনেল মেসি ও সার্জিও আগুয়েরো। চার মিনিটের ব্যবধানে এই দুজনের গোলে ২-০ গোলের সমতা নিয়ে মাঠ ছাড়ে গত বিশ্বকাপের ফাইনালিস্টরা। বলা চলে, মেসি ও আগুয়েরোর কল্যাণে মান বাঁচল আর্জেন্টিনার।

আগের ম্যাচে বলিভিয়াকে ৭-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল আর্জেন্টিনা। সেই দলটির তিনদিন পর আরেক প্রীতি ম্যাচে মেক্সিকোর বিপক্ষে ৭০ মিনিটের মাথায় ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়ে। যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের এটি এন্ড টি স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে আটটায় ম্যাচটি শুরু হয়।

বলিভিয়ার বিপক্ষে ম্যাচের ৬৫ মিনিটে বদলি খেলোয়াড় হিসেবে মাঠে নামানো হয় লিওনেল মেসিকে। তবে এদিন তাকে শুরু থেকেই একাদশে রাখেন কোচ মার্টিনো।

খেলার প্রথমার্ধের ১৯তম মিনিটে হাভিয়ের হার্নান্দেজের গোলে এগিয়ে যায় মেক্সিকো। নিজেদের ডি বক্সের ভেতরে ম্যানচেস্টার সিটির ডিফেন্ডার ওতামেন্দি মেক্সিকোর রাউল জিমেনেসকে ফেলে দিলে রেফারি পেনাল্টির নির্দেশ দেন। স্পট কিক থেকে গোল করে মেক্সিকোকে এগিয়ে নেন হাভিয়ের হার্নান্দেজ।

এরপর ৭০তম মিনিটে হেক্টর হেরেরার গোলে ২-০ গোলে এগিয়ে যায় মেক্সিকো। ক্রস থেকে ভেসে আসা বল নিজের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে জোরালো শটে গোল করেন হেরেরা।

সবাই যখন আর্জেন্টিনার পরাজয়ের প্রহর গুনছিল টিক তখনই ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন সার্জিও আগুয়েরো ও লিওনেল মেসি। প্রথমে ৮৫তম মিনিটে গোল করে আর্জেন্টিনাকে ম্যাচে ফেরানোর চেষ্টা করেন আগুয়েরো। আগের ম্যাচেও জোড়া গোল করেছিলেন এই ম্যানচেস্টার সিটি তারকা।

এরপর নির্ধারিত সময়ের খেলা শেষ হওয়ার এক মিনিট আগে অসাধারণ এক গোল করে আর্জেন্টিনার মান বাঁচান সুপারস্টার মেসি।

৮৫তম মিনিটে বল নিয়ে ডি বক্সের ভেতরে ঢুকে পড়েন এজিকুয়েল লাভেজ্জি। তাকে রুখতে গোলপোস্ট ছেড়ে আসেন মেক্সিকান গোলরক্ষক। লাভেজ্জি নিজে শট না নিয়ে ফাঁকায় দাঁড়িয়ে থাকা আগুয়েরোর দিকে বল বাড়াস। দুর্দান্ত এক শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করে ব্যবধানে ২-১ এ নামিয়ে আনেন এই সিটি ফরোয়ার্ড।

এরপর মেসি ম্যাজিক। গোলটিতে অবদান ছিল আর্জেন্টিনার প্রথম গোলদাতা আগুয়েরো। আগুয়েরো মেসিকে উদ্দেশ্য করে ক্রস বাড়ান। উগে আসা বল বুক দিয়ে নিজের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে অসাধারণ এক গোল করে দলকে হারের লজ্জা থেকে রক্ষা করেন এই বার্সা তারকা।

প্রসঙ্গত, তিনদিন আগে এক আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে লিওনেল মেসি, সার্জিও আগুয়েরো ও এজিকুয়েল লাভেজ্জির জোড়া গোলে বলিভিয়াকে ৭-০ গোলে উড়িয়ে দেয় আর্জেন্টিনা।






মন্তব্য চালু নেই