মেইন ম্যেনু

‘মেসি টিম খেলোয়াড়, রোনালদো শুধু গোল-স্কোরার’

বার্সেলোনার সাবেক খেলোয়াড় ও কোচ ইয়োহান ক্রয়েফ রিয়াল মাদ্রিদের পর্তুগিজ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর চেয়ে বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসিকে এগিয়ে রেখেছেন। রোনালদোকে শুধু গোল-স্কোরার হিসেবে অভিহিত করেন সাবেক এই ডাচ তারকা। অন্যদিকে মেসিকে তিনি টিম খেলোয়াড় হিসেবে উল্লেখ করেন, যার কাজ রোনালদোর মতো শুধু গোল করা নয়, বরং দলকে সাহায্য করা।

খেলোয়াড়ি জীবনে ১৯৭৩ থেকে ১৯৭৮ সাল পর্যন্ত বার্সেলোনার হয়ে মাঠ মাতান ইয়োহান ক্রয়েফ। এরপর ১৯৮৮ থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত কাতালান ক্লাবটির কোচ হিসেবে ন্যু-ক্যাম্পে ছিলেন তিনি। তার কোচিংয়েই প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা (তখনকার ইউরোপিয়ান কাপ) জয় করেছিল। নেদারল্যান্ড ও আয়াক্সের হয়ে খেলার সময় টোটাল ফুটবল ও টিকি-টাকা ছন্দের প্রচলন করেন এই ডাচ কিংবদন্তী তারকা।

স্প্যানিশ পত্রিকা মুন্দো দেপোর্তিভোকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ৬৮ বছর বয়সী ইয়োহান ক্রয়েফ জানান, মেসি রোনালদোর মতো স্বার্থপর নয়। রোনালদোর কাজ হলো শুধু গোল করা নিয়ে ভাবা, সতীর্থদের পাস দেয়া কিংবা সতীর্থদের অ্যাসিস্ট করা নিয়ে তার কোনো মাথা ব্যথা নেই।

ক্রয়েফ বলেন, ‘আমি সব সময়ই এমন খেলোয়াড়দের পছন্দ করে এসেছি, যারা তুলনামূলকভাবে বেশি সৃষ্টিশীল। কারণ আমিও সে রকম ছিলাম। ক্রিশ্চিয়ানো ভালো খেলোয়াড়, কিন্তু সে আসলে গোল-স্কোরার। ও এমন খেলোয়াড় কখনোই হবে না যে কোনো দলকে গড়ে তুলতে পারে কিংবা দল ভালো খেলছে কিনা এ নিয়ে যে উদ্বিগ্ন। ও শুধু নিজের গোল করা নিয়েই উদ্বিগ্ন থাকে।’

মেসি সম্পর্কে ক্রয়েফের মূল্যায়ন, ‘অন্যদিকে মেসি অনেক বেশি দল অন্তঃ প্রাণ খেলোয়াড়। সে পাস দেয়, অনেক বেশি অ্যাসিস্ট করে। গোল-স্কোরার নয় বরং খেলোয়াড়ের হিসেবে এই ভূমিকা পালন করে। কিন্তু তারপরও সে ‘অনেক গোল করে।’

ক্রয়েফের দাবি, গ্রেট খেলোয়াড় ও গ্রেট গোল-স্কোরার হওয়ার মধ্যে সূক্ষ্ম পার্থক্য রয়েছে যেটা অধিকাংশ ফুটবলপ্রেমীদেরই বোধগম্য হওয়ার কথা নয়।

সাবেক এই বার্সেলোনা তারকা বলেন, ‘আমার মতে, একজন গ্রেট খেলোয়াড় ও গ্রেট গোল-স্কোরারের মধ্যে অনেক পার্থক্য রয়েছে। এ কারণেই আপনি ভিন্ন দৃষ্টিকোন থেকে ব্যাপারটিকে বিশদভাবে দেখবেন। খুব কম মানুষই তা করে। এটা (ফুটবলের সৌন্দর্য) ব্যাখ্যা করাও মুশকিল, কারণ খুব কম সংখ্যক লোকই এটি বুঝতে পারবে।’

ইনজুরির কারণে দুই মাসের জন্য মাঠের বাইরে রয়েছেন লিওনেল মেসি। তবে তা সত্ত্বেও ২০১৫ সালের ব্যালন ডি’অর যে লিওনেল মেসির হাতেই উঠতে তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই ইয়োহান ক্রয়েফের, ‘এটি নিয়ে (মেসির ব্যালন ডি’অর জেতা) কোনো সন্দেহ নেই। কেউই মেসির পর্যায়ে নেই। তারা (ফিফা) তার হাতেই আবার এটি তুলে দিবে।’






মন্তব্য চালু নেই