মেইন ম্যেনু

মেয়র আনিসুলকে বেয়াইনের উকিল নোটিশ

ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ এনে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হককে লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছেন তার যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বেয়াইন শামীমুন নাহার লিপি।

লিপির পক্ষে রেজিস্ট্রি ডাকযোগে মঙ্গলবার (১৫ মার্চ) সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মাসুদ রানা এ নোটিশ পাঠান।

পরে মাসুদ রানা সাংবাদিকদের জানান, শামীমুন নাহার লিপি মেয়র আনিসুল হকের পারিবারিকভাবে আত্মীয়। লিপির বোন লুসির স্বামী হলেন মেয়রের ভাই আমিনুল হক হেলাল।

তিনি বলেন, ‘পারিবারিক বিষয়-সম্পত্তি নিয়ে মেয়র আনিসুল হক শামীমুন নাহার লিপিকে না ডেকে লিপির মা জিয়াউন নাহার ও ভাই আরিফুর রশিদের পক্ষাবলম্বন করায় এ নোটিশ পাঠানো হয়েছে এবং মেয়রকে পক্ষপাত থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে।’

নোটিশে আরও বলা হয়, ‘কয়েকদিন আগে মেয়র আনিসুল হক শামীমুন নাহার লিপির মা ও ভাইয়ের মিথ্যা, বানোয়াট কথায় ক্ষমতার অপব্যবহার করে রামপুরা থানায় লিপির বিরুদ্ধে মামলা করতে সহায়তা করেছেন এবং মেয়র আনিসুল হক শামীমুন নাহার লিপির কথা না শুনেই অন্যদের পক্ষাবলম্বন করেছেন, যা দুঃখজনক।’

এতে আরও বলা হয়, মেয়র আনিসুল হক প্রবাসী লিপিকে ‘শেমলেস (নির্লজ্জ)’ বলেছেন, যা মানহানিকর। এ ছাড়া আনিসুল হকের কাছ থেকে একটি এসএমএস পেয়ে লিপি অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন বলেও নোটিশে দাবি করা হয়।

নোটিশে আনিসুল হকের ভাইয়ের স্ত্রী লুসির কাছে তাদের বাবার পাঠানো একটি চিঠি সংযুক্ত করে বলা হয়, ‘আপনি (আনিসুল হক) নিশ্চয় অবগত আছেন শামীমুন নাহার লিপি পরিবারের জন্য অনেক ত্যাগ স্বীকার করে সন্তানদের মানুষ করেছেন। জীবনে অনেক ঘাত-প্রতিঘাত সহ্য করে তিনি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। এমতাবস্থায় আপনি পারিবারিক আত্মীয় ও নগরপিতা হিসেবে তার পাশে না দাঁড়িয়ে মানসিক অশান্তিকে আরও বাড়িয়ে দিয়েছেন।’

নোটিশ পাওয়ার পর থেকে শুধু একপক্ষের অভিযোগ শুনে লিপির বিরুদ্ধে একতরফা সিদ্ধান্ত না নিতে আনিসুল হককে অনুরোধ জানানো হয়। আগামী ৭ দিনের নোটিশের ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে। অন্যথায় আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে নোটিশে উল্লেখ আছে।

গত ২৩ ফেব্রুয়ারি শামীমুন নাহার লিপি বিদুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপুর বিরুদ্ধেও একটি উকিল নোটিশ পাঠিয়েছিলেন।






মন্তব্য চালু নেই