মেইন ম্যেনু

মেয়ের আইডি কার্ডে মায়ের বিয়ে

মেয়ের পরিচয়পত্রের জন্মতারিখ ব্যবহার করে বিয়ে করেছেন সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার এক গৃহবধূ। নিজের ছেলের বয়সী জুনায়েদ আহমদকে বিয়ে করতে ও নিজের বয়স কমাতে তিনি এ কাণ্ড ঘটিয়েছেন। বিষয়টি জানাজানি হয়ে যাওয়ায় মঙ্গলবার স্থানীয়রা উভয়কে ধরে জুতাপেটা করেছেন।

বছর খানেক আগে উপজেলার ধনপুর ইউনিয়নের ছাতারকোনা গ্রামের ছিদ্দিকুর রহমানের ছেলে জুনায়েদের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন ওই গৃহবধূ। গত ২৩ ফেব্রুয়ারি মেয়ের জাতীয় পরিচয়পত্রের জন্ম তারিখ, নাম ও ঠিকানা উল্লেখ করে সুনামগঞ্জের নোটারি পাবলিকের মাধ্যমে বিয়ে করেন ওই গৃহবধূ ও জুনায়েদ। ওই গৃহবধূ উপজেলার সলুকাবাদ ইউনিয়নের দুই সন্তানের জননী। সম্প্রতি গৃহবধূর দ্বিতীয় স্বামী জুনায়েদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ উঠলে থলের বেড়াল সবার সামনে উন্মুক্ত হয়ে যায়।

মঙ্গলবার সলুকাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান তানজিমা মাহজেবীনের স্বামী তোফায়েল হোসেন লিটন জুনায়েদকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ও জনসম্মুখে ১০ বার জুতাপেটা করেন। নিজের মেয়ের বয়স উল্লেখ করে বিয়ে করায় ওই গৃহবধূকেও দশ বার জুতাপেটা করা হয়। তবে তাকে কোনো আর্থিক জরিমানা করা হয়নি। বর্তমানে বিষয়টি এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।






মন্তব্য চালু নেই