মেইন ম্যেনু

মে মাসের শুরুতেই সাপের পুজো, দেখুন ভিডিও

শ্রাবণ মাসের পঞ্চম দিনে, ভারতের নানা জায়গায় সর্পদেবতার পুজো খুবই ‘কমন’ ব্যাপার। প্রতিবেশী দেশ নেপালেও বেশ ঘটা করে পালন করা হয় ‘নাগ পঞ্চমী’।

কিন্তু, প্রাচ্যের গণ্ডি পেরিয়ে এই পুজো যে বিশ্বের অন্যত্র কোথাও হতে পারে, তা না দেখলে বোধহয় বিশ্বাসই হতো না!

ইতালির ল’আকিলা রাজ্যের একটি ছোট্ট শহর কোকুল্লা। বছর তিনেক আগেও এখানের জনসংখ্যা ছিল মাত্র ২৪৬। এ স্থানের সকলের আরাধ্য সেন্ট ডমেনিকো ডি সোরা, যাঁর নামে একটি ছুটির দিনও বরাদ্দ স্থানীয়দের।

মে মাসের প্রথম দিনেই কোকুল্লায় অনুষ্ঠিত হয় এক অভিনব ও বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠান। সেন্ট ডমেনিকোর মূর্তিতে প্রচুর সাপ জড়িয়ে, সেই মূর্তি ঘোরানো হয় শহর জুড়ে। দশম ও একাদশ শতক সময়ের সেন্ট ডমেনিকো ছিলেন ‘বেনেডিক্টাইন মংক’। ইতালির লাজিও ও আব্রুজো এলাকায় বেশ কিছু ধর্মীয় আশ্রমও তৈরি করেন এই ‘সাধু’।

লাজিও ও আব্রুজো এলাকায় এক সময়ে খুবই সাপের উপদ্রব ছিল। এবং হামেশাই মানুষ প্রাণ হারাত সর্পাদষ্ট হয়ে। সেন্ট ডমেনিকো তাঁর জীবদ্দশায় প্রচুর মানুষকে বাঁচিয়ে তোলেন মৃত্যুর মুখ থেকে। যে কারণে তাঁর মূর্তি নিয়ে বেরোয় প্রশেসন।

১০০রও বেশি নির্বিষ সাপ জড়িয়ে দেওয়া হয় সেন্ট ডমেনিকোর কাঠের মূর্তিতে। তারপরে সেই মূর্তি নিয়ে শহর পরিক্রমা করেন সকলে। সারভনে নামে এক প্রজাতির সাপ খুবই দেখা যায় ইতালিতে। দৈর্ঘে ৮ ফুটের বেশি এই সাপটিই সব থেকে লম্বা প্রজাতির এ দেশে।






মন্তব্য চালু নেই